জাতীয়

হজ ও ওমরাহ ব্যবস্থাপনা বিল-২০২১ সংসদে পাস

ঢাকা, ১৫ জুন – নির্বিঘ্নে সুষ্ঠুভাবে হজ ও ওমরা পালন নিশ্চিত এবং এজেন্সিসমূহের নিবন্ধন ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার আওতায় আনার বিধান করে আজ সংসদে হজ ও ওমরা ব্যবস্থাপনা বিল-২০২১ পাস হয়েছে। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন।

বিলে দেশের মুসলমানদের হজ ও ওমরা পালনে গমনাগমনসহ এর সাথে সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিষয়ে সুনির্দিষ্ট বিধান করা হয়। এছাড়া হজ ও ওমরা সংশ্লিষ্ট এজেন্সিগুলোকে আরো উন্নত সেবা প্রদান করতে নিবন্ধন ও ব্যবস্থাপনায় আরো দক্ষতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে সুনির্দিষ্ট বিধান করা হয়।

বিলে উল্লেখিত বিধান লংঘনজনিত অপরাধের বিচার এবং দন্ড প্রদানের বিধান করা হয়েছে। অপরাধে সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা জরিমানা, হজ এজেন্সির লাইসেন্স বাতিলসহ বিভিন্ন দন্ডের বিধান করা হয়েছে।

এছাড়া বিলে হজ এজেন্সি নিবন্ধন, নিবন্ধনের যোগ্যতা ও শর্তাদি, নিবন্ধন স্থগিত ও বাতিল, লাইসেন্স প্রাপ্তি, লাইসেন্স স্থগিত ও বাতিল, লাইসেন্স নবায়ন, অপরাধ, বিচার, দন্ড, জরিমানা, হজ পালনে যোগ্যতা ও শর্তাদিসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিষয়ে সুনির্দিষ্ট বিধান করা হয়।

বিলে সুষ্ঠু হজ ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে হজ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত জাতীয় কমিটি ও নির্বাহি কমিটি গঠনের বিধান করা হয়।

বিল পাসের প্রক্রিয়ায় জাতীয় পার্টির মুজিবুল হক, পীর ফজলুর রহমান, শামীম হায়দার পাটোয়ারী, বেগম রওশন আরা মান্নান, বিএনপির হারুনুর রশীদ, মোশাররফ হোসেন, বেগম রুমীন ফারহানা এবং স্বতন্ত্র সদস্য রেজাউল করিম বাবলু বিলের ওপর জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধন প্রস্তাব আনলে ২টি সংশোধনী গ্রহণ করা হয়। বাকী প্রস্তাবগুলো কন্ঠ ভোটে নাকচ হয়ে যায়।

এছাড়া আজ সংসদে মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ বিল-২০২১ এর ওপর নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির রিপোর্ট উপস্থাপন করা হয়। কমিটির সভাপতি মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম রিপোর্টটি উপস্থাপন করেন।

সূত্র : একুশে
এন এইচ, ১৫ জুন

Back to top button