পশ্চিমবঙ্গ

বুধবার থেকে ২৫% কর্মী নিয়ে চলতে পারবে সরকারি-বেসরকারি অফিস, বন্ধ বাস-মেট্রো

কলকাতা, ১৪ জুন-  আগামী ১৬ জুন থেকে রাজ্যে কড়া বিধিনিষেধে ছাড় দেওয়া হচ্ছে। তা থাকবে ১ জুলাই পর্যন্ত।

কী কী বিধিনিষেধ থাকছে এবং কী কী খুলছে দেখে নিন-

১) সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত বেসরকারি সংস্থা খোলা থাকবে। সর্বাধিক ২৫ শতাংশ কর্মী উপস্থিত থাকতে পারবেন। কর্মীদের জন্য পরিবহনের বন্দোবস্ত করবে সংশ্লিষ্ট সংস্থা। যাতায়াতের জন্য ই-পাস লাগবে।

২) ২৫ শতাংশ কর্মী নিয়ে চালু হয়ে যাবে সমস্ত সরকারি অফিস। সাধারণ সময় অনুযায়ী কবে কোন কর্মীদের অফিস যেতে হবে, তা ঠিক করে দেওয়া হবে। অফিসের তরফে পরিবহনের বন্দোবস্ত করা হবে।

৩) সকাল ৭ টা থেকে ১১ টা পর্যন্ত শাক, সবজি, দুধের দোকান-সহ খুচরো দোকান খোলা থাকবে। অন্যান্য দোকান খোলা থাকবে সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত।

৪) বেলা ১২ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত হোটেল, রেস্তোরাঁ এবং পানশালা খোলা রাখা যাবে। ৫০ শতাংশ মানুষ বসতে পারবেন।

৫) সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত শপিং মল, শপিং কমপ্লেক্স খোলা থাকবে। সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ মানুষ ঢুকতে পারবেন। ২৫ শতাংশ কর্মী থাকতে পারবেন।

৬) অটো চলাচল বন্ধ থাকবে। ট্যাক্সি, অ্যাপ ক্যাব চলাচল বন্ধ থাকবে। কার্যত সবরকমের গাড়ি চলাচল বন্ধ থাকছে। শুধুমাত্র জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত গাড়ি, চিকিৎসা, সংবাদমাধ্যম, হাসপাতাল, ক্নিনিক, টিকাকরণ কেন্দ্র, বিমানবন্দর থেকে গাড়ি, টার্মিনাল পয়েন্ট থেকে গাড়ি চলাচল করতে পারবে। জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত, জরুরি কারণে ট্যাক্সি, অ্যাপ ক্যাব চালু রাখা যাবে।

৭) প্রতিটি শিফটে তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা এবং কারখানা ৫০ শতাংশ কর্মী নিয়ে খোলা যাবে। তবে করোনাভাইরাস টিকা নিতে হবে। মেনে চলতে হবে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত সুরক্ষাবিধি। অফিস থেকে পরিবহনের বন্দোবস্ত করতে হবে। যাতায়াতের জন্য ই-পাস লাগবে।

৮) সকাল ৬ টা থেকে সকাল ৯ টা পর্যন্ত প্রাতঃর্ভ্রমণের ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। তবে দু’ডোজের টিকা নেওয়া হলে তবেই ছাড় দেওয়া হবে।

৯) রাত ৯ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত যাবতীয় গতিবিধিতে নিষেধাজ্ঞা থাকবে। শুধুমাত্র জরুরি পরিষেবা ও চিকিৎসাজনিত কারণে ছাড় মিলবে।

১০) ব্যাঙ্ক খোলা থাকবে। তবে সকাল ১০ টা থেকে দুপুর দুটো পর্যন্ত কাজ চলবে। এটিএম পরিষেবা মিলবে।

১১) দর্শকশূন্য স্টেডিয়াম, মাঠে খেলা চালানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

১২) ২৫ শতাংশ কর্মী নিয়ে চা-বাগান চালু হতে পারে।

১৩) স্কুল, কলেজ-সহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

১৪) ইন্ডোর, আউটডোর শুটিং চালু করা যাবে। একসঙ্গে সর্বাধিক ৫০ জন থাকতে পারবেন। নিতে হবে করোনা টিকা। নিজেদের পরিবহনের ব্যবস্থা করতে হবে। লাগবে ই-পাস।

১৫) রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক – সবরকম জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা।

১৬) স্পা, বিউটি পার্লার, সিনেমা হল, রেস্তোরাঁ, সুইমিং পুল, জিম বন্ধ থাকবে।

১৭) বিয়েবাড়িতে সর্বাধিক ৫০ জন উপস্থিত থাকতে পারবেন।

১৮) সৎকারে সর্বাধিক ২০ জন থাকতে পারবেন।

তথ্যসূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস্
এস সি/১৪ জুন

Back to top button