সিলেট

আইনজীবী আনোয়ারকে ১০টি ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে হত্যা করেন স্ত্রী

সিলেট, ১৩ জুন – সিলেটে পরকীয়ার বলি আইনজীবী আনোয়ার হোসেনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছেন বলে দায় স্বীকার করেছেন তার স্ত্রী শিপা বেগম (৩৫)।

রবিবার (১৩ জুন) ৫ দিনের রিমাণ্ড শেষে তাকে আদালতে তোলা হলে তিনি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ।

আদালতে শিপা বেগম বলেন, তার খালাতো ভাই ও পরকীয়া প্রেমিক শাহজাহানের সাথে পরিকল্পনা করে ৩০ এপ্রিল রাতে ১০টি ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে স্বামী আনোয়ার হোসেনকে হত্যা করেন শিপা। পরে স্বজনদের তিনি জানান, ডায়বেটিস কমে গিয়ে ও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার স্বামীর মৃত্যু হয়েছে।

এর আগে, গত রবিবার (৬ জুন) সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুর রহমান শিপার রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, পরকীয়ায় জড়িয়ে সিলেটে আনোয়ার হোসেন (৪২) নামে এক আইনজীবীকে হত্যার অভিযোগে শিপা বেগমের (৩৫) বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। নিহতের ছোট ভাই মনোয়ার হোসেন বাদি হয়ে বুধবার (২ জুন) সিলেটের আদালতে দরখাস্ত মামলা করেন। আদালতের নির্দেশে মামলাটি (নং-৩(৬)২০২১) রেকর্ড করেছে কোতোয়ালি থানাপুলিশ। মামলায় শিপা বেগম ছাড়াও মামলায় আরো সাতজনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলায় পরকীয়ায় জড়িয়ে বিয়ে করা শিপা বেগমের বর্তমান স্বামী খালাতো ভাই সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ি রহমত আলীর ছেলে শাহজাহান চৌধুরীকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। অন্য আসামিরা হলেন- শিপা বেগমের মা রাছনা বেগম (৫০), নগরীর রায়নগর ১০৪ বাসার মোতাহির আলীর ছেলে এনামুল হাসান (৪৫), সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার হরিপুরের মৃত সোনা মিয়ার ছেলে এসএম জলিল (৩৫), সিলেট সদর উপজেলার এয়ারপোর্ট থানাধীন কালাগুল এলাকার কালা মিয়ার ছেলে জাকির আহমদ (২৫), সিলেটের গোয়াইনঘাটের ছোটখেল গ্রামের জামাল মিয়ার ছেলে ফয়ছল আহমদ (২৬) ও নগরের সুবিদবাজার লন্ডনী রোডের বাসিন্দা নাইমার (২৫)।

সূত্র: সিলেট ভিউ
এম ইউ/১৩ জুন ২০২১

Back to top button