বিচিত্রতা

কোটি টাকা দামের স্মার্টফোন!

ইদামি মোবাইল ফোন ব্যবহারের শখ প্রায় সবারই আছে। কিন্তু সেটা কত দামি হতে পারে? শুনলে হয়তো অবাক হতে হয়, পৃথিবীতে হাজার কোটি টাকা দামের মোবাইল ফোনও বিক্রি হয়েছে!

সাধারণত আইফোন বা ভালো কোনো স্মার্টফোন হলে আমরা খুশি হই। তবে কিছু মানুষ তার খুশির জন্য হাজার কোটি টাকা দামের মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন।

পৃথিবীর সবচেয়ে দামি ফোনটি তৈরি করেছিল জনপ্রিয় ও দামি মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘অ্যাপল’। ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বের সবচেয়ে দামি মোবাইল ফোন তৈরি করে হইচই ফেলে দেয়।

অ্যাপলের ‘আইফোন’ ব্যান্ড তৈরি করে ‘ফ্যালকোন সুপারনোভ আইফোন-৬ পিঙ্ক ডায়মন্ড’। যার বাজারমূল্য ধরা হয়েছিল ১১০ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার। যা বর্তমান বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা।

তবে অ্যাপল পরবর্তীতে এই ফোন দাম কমিয়ে দেয়। পরে এই ফোন বিক্রি হয় ৪৮ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলারে বা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৫০০ কোটি টাকায়। তবে প্রায় ১ বছর আগে থেকে এ ফোন তৈরি বন্ধ করে দিয়েছে অ্যাপল।

‘ফ্যালকোন সুপারনোভ আইফোন-৬ পিঙ্ক ডায়মন্ড’ ফোনটি তৈরি করা হয়েছিল মাত্র ২০০টি। এই ফোনটি যারা কিনতে আগ্রহী ছিলেন তারা তাদের থেকেই অ্যাপলকে অর্ডার দিতে হতো। অর্ডার মতো ফোনটি তৈরি হতো অ্যাপলের কারখানায়।

বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই ফোনটিতে রয়েছে ২৪ ক্যারেটের স্বর্ণ। গোলাপি স্বর্ণ দিয়ে সাজানো হয়েছে ফোনটি। ফোনটির বডিতে ব্যবহার করা হয়েছে প্লাটিনাম।

ভারতের সবচেয়ে ধনী শিল্পপতি মুকেশ আম্বানির স্ত্রী নিতা আম্বানি এই ফোন ব্যবহার করেন বলে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ করা হয়েছিল। তবে বিষয়টি ছিল গুজব।

মুকেশ আম্বানি, নিতা আম্বানি বা তার পরিবারের কেউ এমন ফোন ব্যবহার করেন না বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল।

এম এন / ০৪ জুন

Back to top button