বিচিত্রতা

ভক্সওয়াগন, বিশ্বের সবচেয়ে ছোট হোটেল!

বেড়াতে গেলে অনেকেই আছেন যারা ল্যান্ডস্কেপ দেখার চাইতে হোটেলে সময় কাটাতে পছন্দ করেন। তার জন্য তো অবশ্যই সেই হোটেলের সব ধরনের সুবিধা পেতেই হবে। আচ্ছা তবে এমন যদি হয় যে এই ধরনের হোটেলপ্রেমীকে একটি চার চাকার হোটেলের মাঝে রাখা হয় তাহলে কেমন হবে? কি ভাবছেন? এমন হোটেল আবার হয় নাকি? জি হয়, একটি ভক্সওয়াগন গাড়িই পাঁচতারকা হোটেলের সুবিধা দেবে!

জর্ডানের মানুষ এই হোটেলের সঙ্গে ভালোভাবেই পরিচিত। ৬৪ বছরের মহম্মদ আল মাহিম ওরফে আবু আলি এই হোটেলের অতিথিদের ফাইভ স্টার হোটেলের মতো অভিজ্ঞতা দেওয়ার চেষ্টা করেন। জর্ডনের মরুভূমি আলা জায়াতে অবস্থিত তার ভক্সওয়াগনের এই চার চাকার ফাইভ স্টার হোটেল।

এই হোটেলে থাকার অভিজ্ঞতা নাকি কোনো অংশে ফাইভ স্টার হোটেলে থাকার থেকে কম নয়। কোনো বহুতল বা কটেজ নয়, এই হোটেল চলে একটি ছোট্ট চার চাকার গাড়ির মধ্যে। হাত-পা ছড়িয়ে থাকার মতো বিলাসবহুল আসবাবের ব্যবস্থা নেই। এমনকি, ইটের দেয়ালও নেই সেই হোটেলে।

একটি ভিডবলিউ বিটল কারকে হোটেলে পরিণত করেছেন আবু আলিই। ২০১১ সালে চাকরি থেকে অবসর নেয়ার পরে এই গাড়িটি তৈরি করেন। গাড়িতে রয়েছে ঘুমোনোর ব্যবস্থাও।

কিন্তু কেন হঠাৎ গাড়ির মধ্যে হোটেল খুলতে গেলেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, জর্ডানে বহু জায়গা রয়েছে পর্যটকদের ঘোরার জন্য।

জর্ডানকে পর্যটকদের কাছে আরো বেশি আকর্ষণীয় করে তুলতেই এই পদক্ষেপ নেন তিনি। বিশ্বের ক্ষুদ্রতম এই হোটেলে অতিথিদের নিজে হাতে চা, কফি, ও স্ন্যাকস বানিয়ে দেন আবু আলির মেয়ে। সেই সঙ্গে চাদর-বালিশ ইত্যাদি নিজে হাতে তৈরি করে দিয়েছেন আবু আলির মেয়ে।

এছাড়া রাতে খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। ফাইভ স্টার হোটেলের মতো আপ্যায়ন করলেও মরুভূমির বুকে এই হোটেলের এক দিনের খরচ ৫৬ ডলার মানে ৩৬৪১ টাকা।

এম এন / ০৪ জুন

Back to top button