ক্রিকেট

পিসিবির চিকিৎসকরা প্রেসক্রিপশনই লিখতে পারেন না!

ইসলামাবাদ, ০৫ মার্চ – পাকিস্তানের ঘরোয়া লিগ পিএসএল বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর প্রশ্ন উঠেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) জৈব সুরক্ষাবলয় নিয়ে। প্রশ্ন উঠেছে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়েও। কারণ জৈব সুরক্ষাবলয়ের মধ্যেই পিএসএলের সাত ক্রিকেটার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। উপায় না পেয়ে শেষ পর্যন্ত গতকাল বৃহস্পতিবার টুর্নামেন্টটি স্থগিত করে পিসিবি।

পিএসএল বন্ধ হওয়ার পর পিসিবির জৈব সুরক্ষাবলয় ব্যবস্থা নিয়ে খেপেছেন দেশটির সাবেক পেসার শোয়েব আখতার। ক্রিকেট বোর্ডের অসতর্কতার জন্য এমনটা হয়েছে বলে মনে করেন তিনি। এমনকি বোর্ডের চিকিৎসা ব্যবস্থাকেও ধুয়ে দিয়েছেন তিনি। তাঁর মতে, প্রেসক্রিপশন লিখতে না পারা লোকরাই পিসিবির চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত।

আরও পড়ুন : চলছিল ওয়ানডে ম্যাচ, হঠাৎ করোনার খবরে পরিত্যক্ত

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে শোয়েব বলেন, ‘তোমরা মানুষের জীবন নিয়ে খেলছ, দেশের সুনাম নষ্ট করছ। পিসিবি সভাপতি কোথায়, তাঁকে জবাব দিতে হবে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ও মাননীয় আদালতকে এ বিষয়ে ভালো করে তদন্তের অনুরোধ জানাই। মানি (পিসিবির বর্তমান সভাপতি) কোথায়? সামনে এসে উত্তর দিন। পিএসএল চালিয়ে তুমি পাকিস্তানের সুনাম ক্ষুন্ন করেছ।’

এরপর চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রশ্ন তুলে শোয়েব বলেন, ‘এখন দোষ চাপানোর খেলা শুরু হবে। কিন্তু এটা চিকিৎসক প্যানেলের দায়িত্ব আর জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ ভালোভাবে বজায় রাখা উচিত ছিল। চিকিৎসক প্যানেলের বিরুদ্ধে কঠোর তদন্ত হওয়া উচিত। তাদের ছেড়ে দেওয়া উচিত হবে না। চিকিৎসক প্যানেলের শাস্তি পাওয়া উচিত, এ নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, কারণ তারা মানুষের জীবন নিয়ে খেলা করেছে। যেসব লোক ওষুধের প্রেসক্রিপশন ঠিকমতো লিখতে পারে না, তারা হয়েছে পিসিবির চিকিৎসক। খেলোয়াড়ি জীবনে আমি নিজেই দেখেছি, পিসিবির চিকিৎসকরা এক্স–রে করতে পারত না। অবস্থার এখনও পরিবর্তন হয়নি।’

সূত্র : এনটিভি
এন এইচ, ০৫ মার্চ

Back to top button