জাতীয়

ওসি প্রদীপের ফোনে কথা বলতে চাওয়ার আবেদন খারিজ

চট্টগ্রাম, ১৩ অক্টোবর- কক্সবাজারের টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের সঙ্গে কারাগারে আইনজীবী ও পরিবারের কোনো সদস্য করোনার কারণে আপাতত দেখা করতে পারছেন না। নৃশংস মামলার আসামি হওয়ায় মোবাইল ফোনেও কথা বলার সুযোগ পাচ্ছেন না তিনি। প্রদীপ কক্সবাজারে মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ হত্যা মামলার আসামি।

মঙ্গলবার চট্টগ্রাম সিনিয়র স্পেশাল জজ ও মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালতে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলার নিয়মিত হাজিরা দিতে হাজির করা হয় প্রদীপকে।

শুনানিতে তার আইনজীবী মোবাইল ফোনে তাকে কথা বলার সুযোগ দিতে আদালতে আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত সেই আবেদন খারিজ করে দেন।

দুদকের পিপি অ্যাডভোকেট মাহমুদুল হক মাহমুদ এ প্রতিবেদককে বলেন, করোনাকালে কারাগারে বন্দি থাকা কোনো আসামির সঙ্গে স্বজনের দেখা করার সুযোগ নেই। মোবাইল ফোনে বন্দিরা স্বজনের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পাচ্ছেন। কিন্তু কারা বিভাগ থেকে জারি করা একটি সার্কুলারে সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘কারাগারে বন্দি থাকা নৃশংস মামলার আসামি, চাঁদাবাজি মামলার আসামি ও জঙ্গিরা মোবাইল ফোনে কথা বলার সুযোগ পাবেন না।’

আরও পড়ুন:  হৃদরোগে আক্রান্ত রিজভী, অবস্থা সংকটাপন্ন

প্রদীপ কুমার যেহেতু নৃশংস মামলার আসামি, তাই শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তি শুনে আদালত তাকে মোবাইল ফোনে কথা বলার সুযোগ দেওয়ার আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন। তবে তাকে কারাবিধি অনুযায়ী চিকিৎসা দেওয়ার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন আদালত।

কক্সবাজার থেকে দুদকের মামলায় শুনানির জন্য গত ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে প্রদীপ কুমার চট্টগ্রাম কারাগারে রয়েছেন। ২৩ আগস্ট মেজর (অব.) সিনহা হত্যা মামলায় আটক ও বরখাস্ত হওয়া টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকি কারণের বিরুদ্ধে প্রায় চার কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে দুদক।

সূত্র: সমকাল

আর/০৮:১৪/১৩ অক্টোবর

Back to top button