পিরোজপুর

পিরোজপুরে যুবককে হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন

পিরোজপুরে যুবককে হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন

পিরোজপুর, ১৩ অক্টোবর- পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের জন্য ২০১৪ সালে এক যুবককে হত্যার দায়ে চার যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন পিরোজপুরের একটি আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ মো. সহিদুজ্জামান এ আদেশ দেন।

তিনি যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানাও করেন। এছাড়া হত্যাকাণ্ডের পর ছিনতাইকৃত মোটরসাইকেল লুকিয়ে রাখার অপরাধে অন্য দুই আসামিকে ৫ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড এবং পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন বিচারক।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্তরা হলেন, পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার হোগলপাতি গ্রামের আব্দুল খালেক হাওলাদারের ছেলে সোহেল রানা (২৬), বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার পূর্ব হাতেমপুর গ্রামের ফজলুল হক ঘরামীর ছেলে মিলন ঘরামী (২৬) ও একই উপজেলার ঘুটাবাছা গ্রামের মজিবর রহমান হাওলাদারের ছেলে আল আমীন হাওলাদার (২৮) ও আব্দুল মালেক মল্লিকের ছেলে মাসুম বিল্লাহ (৩৮)। এছাড়া পাঁচ বছর সাজাপ্রাপ্তরা হলেন, বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার ঘুটাবাছা গ্রামের মৃত আব্দুল জব্বার হাওলাদারের ছেলে হিরু হাওলাদার (৩৯) এবং একই উপজেলার ছোট পাথরঘাটা গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে লিটন চৌকিদার (৩০)।

ঘটনার পর থেকেই যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে সোহেল রানা বাদে অন্য তিন আসামি পলাতক রয়েছেন। গ্রেপ্তারকৃত তিন আসামির উপস্থিতিতে বিচারক মামলার রায় ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন: নাশকতা মামলায় গৌরনদী বিএন‌পির ২৭ নেতাকর্মী জেলে

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বন্ধুত্বের সুযোগ নিয়ে মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের উদ্দেশে সুকৌশলে মোবাইলফোনে ডেকে নিয়ে ২০১৪ সালের ৯ মার্চ রাতে পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার মৃত নূরুল ইসলামের ছেলে সাকিল সিকদারকে মোটরসাইকেলের তার দিয়ে পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তার বন্ধু সোহেল, মিলন, আল আমীন ও মাসুম। এরপর তার মরদেহটি উপজেলার শিংখালী গ্রামে ধানক্ষেতের মধ্যে ফেলে রেখে হত্যাকারীরা সাকিলের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি নিয়ে বরগুনার পাথরঘাটায় চলে যায়। এ ঘটনায় পরের দিন পুলিশ ধানক্ষেত থেকে সাকিলের মরদেহ উদ্ধার করে পিরোজপুর জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ওই দিনই মৃতের মা আলো বেগম বাদী হয়ে দুই জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

সূত্র : আরটিভি
এম এন / ১৩ অক্টোবর

Comments

Back to top button