নাটক

‘বিজয়া’ নাটক: তিশাসহ ৪ জনকে হত্যার হুমকি!

‘বিজয়া’ নাটক: তিশাসহ ৪ জনকে হত্যার হুমকি!

ঢাকা, ১৩ অক্টোবর- ধর্মানুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগে অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশাসহ আরও তিন জনের বিরুদ্ধে যে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ বলে দাবি করেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট। উল্টো তাদেরকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এমনটা দাবি করে উল্টো এটা একাট সাম্প্রদাায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অপ-উদ্দেশ্য বলে অভিযোগ করেন ‘বিজয়া’ নাটকের প্রযোজক ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্টের ডেপুটি সিইও তাজুল ইসলাম।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশের অন্যতম ব্যস্ত ও জনপ্রিয় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট-এর প্রযোজনায় শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে নির্মিত ‘বিজয়া’ টেলিভিশন কাহিনীচিত্রকে কেন্দ্র করে কিছু দুর্বৃত্ত গত কিছুদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে (সদানন্দ দাস মুন্সি, দেবু কর্মকার, অরূপ বণিকসহ আরো অনেকেই) এই গল্পের লেখক সালাহ্ উদ্দিন শোয়েব চৌধুরী, নির্মাতা আবু হায়াত মাহমুদ, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশাসহ সংশ্লিষ্টদের হত্যার হুমকিসহ অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ দিয়ে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় জনৈক লিটন কৃষ্ণ দাস তার নিয়োজিত আইনজীবী সুমন কুমার রায়ের মাধ্যমে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ তুলে একটি উকিল নোটিশ পাঠিয়েছেন। যা ইতিমধ্যে কয়েকটি গণমাধ্যমের অনলাইন ভার্সনে প্রকাশিত হয়েছে। ওই উকিল নোটিশে খুবই পরিকল্পিতভাবে দাবী করা হয়েছে- তারা নাকি এই নাটকের ট্রায়াল ভার্সন দেখেছেন, যা খুবই হাস্যকর।

এখানে আমরা দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলতে চাই, নোটিশে উল্লেখিত দাবিসমূহ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। নাটকের টিজার বা এ সংক্রান্ত কোনো তথ্যই আমরা প্রকাশ করিনি, করলে প্রচারের স্বার্থেই সেগুলো গণমাধ্যম কর্মীরা পেয়ে যেতেন।

আরও পড়ুন: ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত, তিশা-ইরফানসহ ৪ জনকে আইনি নোটিশ

বর্তমানে নাটকটির পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ চলছে, যা সম্পন্ন হবার পরই কেবল টিজার বা গল্প সংক্ষেপ প্রকাশ হবে এবং যথারীতি গণমাধ্যমকর্মীদের হাতেও পৌঁছে যাবে। এক্ষেত্রে আমাদের বিশ্বাস, একটি অশুভ চক্র দেশের বিদ্যমান সাম্প্রদাায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অপ-উদ্দেশ্যে এই নাটকটি সম্পর্কে সম্পূর্ণ মিথ্যে অপপ্রচার চালানোর পাশাপাশি এই নাটকের লেখক, নির্মাতাসহ সংশ্লিষ্টদের হত্যার হুমকি দিয়ে এক ধরনের নৈরাজ্য সৃষ্টির হীন চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন।

এতে সংশ্লিষ্টগণ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন, অপরদিকে ব্যক্তির সুনাম ক্ষুন্নসহ সাম্প্রদায়িক চেতনা বিনষ্ট হচ্ছে বলে আমরা মনে করছি।

সেইসঙ্গে বিজ্ঞপ্তিতে প্রত্যাশা ব্যক্ত করে- ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট প্রতিষ্ঠানটি তার অভীষ্ট লক্ষে পৌঁছাতে গণমাধ্যমের সহযোগিতা পাওয়ার, পাশাপাশি অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজেরও আহ্বান জানানো হয়।

ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করলে সব ধরনের ভুল বোঝাবুঝিরও অবসান হবে বলে প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বাস করে। আশা করছি, আমাদের এই বক্তব্যেও মধ্য দিয়ে সমস্ত ভুল বুঝাবুঝির অবসান ঘটবে।

এম এন / ১৩ অক্টোবর

Comments

Back to top button