দক্ষিণ এশিয়া

উত্তরাখণ্ডে হিমবাহে ভেঙে তুষারধস, বাড়ছে জলস্তর, হতাহত ১০০-১৫০ ছাড়ানোর আশঙ্কা

দেরাদুন, ০৭ ফেব্রুয়ারি – হিমালয়ের হিমবাহ ভেঙে তুষারধসে ভারতে একটি জলবিদ্যুৎ বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর দেড়শ মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। বাঁধভাঙা পানিতে নদীর পার্শ্ববর্তী একটি নদী প্লাবিত হওয়ায় দ্রুত স্থানীয় বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রকাশ করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রবিবার উত্তরখণ্ডের চামেলি জেলায় হিমবাহ ভেঙে প্রবল স্রোত বাঁধের দিকে ধেয়ে আসছে এবং বাঁধের একাংশ ভাসিয়ে নিয়ে যায়।

উত্তরখণ্ডের মুখ্যসচিব ওম প্রকাশ জানান, দেড়শ জনের মতো মানুষের মৃত্যু হতে পারে, তবে নির্দিষ্ট কোনো সংখ্যা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

আরও পড়ুন : দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরব না : ভারতের কৃষক নেতা

এক প্রত্যক্ষদর্শীর ভাষ্য, বরফধসের পর বালি, পাথর ও পানির একটা দেওয়াল নদীর দিকে যেন গর্জন করে নেমে আসছে।

রেইনি গ্রামের ওপরের দিকে বসবাসকারী সঞ্জয় সিং রানা বলেন, ‘এটি এত দ্রুত ছিল যে, কাউকে সতর্ক করার সময়ও পাওয়া যায়নি। আমাদেরকেই ভাসিয়ে নিয়ে যাবে মনে করেছিলাম।’

গ্রামটির তপোবন এলাকায় ঘটনাস্থলের ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বাঁধ ভাঙা পানি নদীর দু’পাশের বাড়ি ঘর ভেঙে তীব্র গতিতে এগোচ্ছে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে ভারত-তিব্বত সীমান্তরক্ষী বাহিনীর ২০০ জনের উদ্ধারকারী দল।

চামোলি থেকে ঋষিকেশ যাওয়ার রাস্তাসহ পুরি, তেহরি, রুদ্রপরাগ, হরিদ্বর, দেরাদুন এবং আশপাশের জেলায় হাই অ্যালার্ট জারি করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

সূত্র : দেশরুপান্তর
এন এইচ, ০৭ ফেব্রুয়ারি

Back to top button