উত্তর আমেরিকা

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গ ছাড়লেন ৫ মার্কিন আইনজীবী

ওয়াশিংটন, ০১ ফেব্রুয়ারি – যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন বিচার শুরু হওয়ার সপ্তাহ খানেক আগেই তাকে ছেড়ে গেছেন তার পাঁচ আইনজীবী। এখন খুবই অস্বস্তির মধ্যে রয়েছেন ট্রাম্প। হন্যে হয়ে খোঁজাখুঁজি করছেন অন্য আইনজীবী; যারা তার হয়ে সিনেটে ইমপিচমেন্ট মামলা লড়বেন। খবর এসেছে, কীভাবে মামলা লড়বেন, তা নিয়ে ট্রম্পের সঙ্গে বনিবনা হয়নি বলেই তারা ট্রাম্পের সঙ্গ ছাড়লেন।

আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হবে এই বিচার। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, দ্বিতীয় অভিশংসন বিচারে তার হয়ে লড়তে ইচ্ছুক আইনজীবী খুঁজে পেতে ট্রাম্পকে যখন গলদ্ঘর্ম হতে হচ্ছে তখন এ ঘটনায় নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এখন আগামী সপ্তাহে আইনি শুনানি ও কয়েকদিনের মধ্যে বিচার শুরু হওয়ার আগে, নির্বাচন জালিয়াতির অভিযোগে অনড় থাকা ট্রাম্প হঠাৎ করে নিজেকে আইনি প্রতিনিধিত্বহীন অবস্থায় দেখতে পাচ্ছেন। নেতৃত্বে থাকা আইনজীবীদের মধ্যে যে দুজন থাকবেন বলে ধারণা করা হচ্ছিল, সেই বুচ বাওয়ার্স ও ডেবরাহ বারবিয়ারও আর দলে নেই। এই পরিবর্তন সম্পর্কে জানেন এমন একটি সূত্র জানিয়েছে, সমঝোতার মাধ্যমেই এ দুজন ট্রাম্পের আইনি দল ত্যাগ করেছেন। প্রধান আইনজীবী হিসেবে বাওয়ারস দলটি গড়ে তুলেছিলেন।

আরও পড়ুন : মে মাসের ১ তারিখ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ৬ লাখ ৫৪ হাজার মানুষ মারা যেতে পারে

সম্প্রতি এই দলে যুক্ত হওয়া নর্থ ক্যারোলাইনার আইনজীবী জশ হাওয়ার্ডও চলে গেছেন বলে আরেকটি সূত্র জানিয়েছে। সাউথ ক্যারোলাইনার আইনজীবী জনি গ্যাসার ও গ্রেগ হ্যারিসও এ বিচারে ট্রাম্পের হয়ে আর লড়াইয়ে নামছেন না বলেও জানা গেছে।

ঘটনার প্রেক্ষাপট সম্পর্কে জানেন এমন এক ব্যক্তি জানিয়েছেন, দায়িত্ব থেকে বিদায় নেওয়ার পর একজন প্রেসিডেন্টকে দোষী সাব্যস্ত করার বৈধতার নিয়ে বিতর্ক নামতে চেয়েছিলেন ওই আইনজীবীরা, কিন্তু ট্রাম্প চেয়েছিলেন নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে আর এর মাধ্যমে নির্বাচন তার কাছ থেকে চুরি করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এই বিষয়টিই প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করুক তারা।

ওই আইনজীবীদের অগ্রিম কোনো ফি দেওয়া হয়নি এবং এ বিষয়ক কোনো চুক্তিও স্বাক্ষর হয়নি বলে জানিয়েছে।

ট্রাম্পের সাবেক প্রচারণা উপদেষ্টা জেইসন মিলার বলেছেন, এরই মধ্যে দায়িত্ব থেকে বিদায় নেওয়া একজন প্রেসিডেন্টকে অভিশংসিত করার ডেমোক্র্যাট উদ্যোগ পুরোপুরি অসাংবিধানিক ও দেশের জন্য অত্যন্ত খারাপ। ঘটনা হচ্ছে এরই মধ্যে ৪৫ সিনেটর ভোট দিয়ে জানিয়েছে এটি অসাংবিধানিক। আমরা অনেক কাজ গুছিয়ে রেখেছি কিন্তু আমাদের আইনি টিমের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি, অল্প সময়ের মধ্যেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

সূত্র : প্রতিদিনের সংবাদ
এন এইচ, ০১ ফেব্রুয়ারি

Back to top button