জাতীয়

আজ অনেক সুষ্ঠু ভোট হয়েছে: ইসি সচিব

ঢাকা, ৩০ জানুয়ারি – নির্বাচন কমিশনের (ইসি) জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আলমগীর বলেছেন, যে প্রতিবেদন আমরা পেয়েছি বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে এবং গণমাধ্যম থেকে, আজকে অনেক সুষ্ঠু হয়েছে, অনেক ভালো একটা নির্বাচন হয়েছে। সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে।

শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে তৃতীয় ধাপের পৌরসভা ভোট শেষে সাংবাদিকদের কাছে এসব বলেন তিনি।

মাত্র দুইটি কেন্দ্রে ভোট বন্ধ হয়েছে উল্লেখ করে ইসির জ্যেষ্ঠ সচিব বলেন, ‘জামালপুরের সরিষাবাড়িতে ব্যালট পেপার হারিয়ে গেছে। কীভাবে হারিয়েছে সেটি এখন ফাইন্ড আউট হবে, কয়েকটি বই হারিয়ে গেছে, ১০-১২টা বইয়ের পাতা। ব্যালট পেপার হারিয়ে যাওয়ার কারণে প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসার যারা ওই কেন্দ্রের দায়িত্বে আছেন তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং ওই কেন্দ্রের নির্বাচন বন্ধ করা হয়েছে। আর কুমিল্লার বড়ুরায় ব্যালট বাক্স তছনছ করা হয়েছে। সে কারণে সেই কেন্দ্রের ভোটও বন্ধ করা হয়েছে। এ ছাড়া সব কেন্দ্রের ভোট সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে’।

আরও পড়ুন : পুলিশের গাড়িতে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের হামলা, আহত ওসিসহ ৫

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, প্রথম দফা এবং দ্বিতীয় দফায় ব্যালট এবং ইভিএম দুটোই ছিল। আজকেরটা ব্যালটে হয়েছে। আমি বলব যে কোনোটার চেয়ে কোনোটা মন্দ হয়নি। দ্বিতীয়টায় সিরাজগঞ্জে একটা দুঃখজনক ঘটনা না ঘটলে প্রত্যেকটা প্রায় একই রকম হয়েছে। আজকেরটা তো একেবারে শান্তিপূর্ণভাবে হয়েছে সব জায়গায়। মিডিয়ায়ও আমরা তাই দেখেছি।

ব্যালটে কমিশনের সিল না থাকার বিষয়টি নজরে আনলে তিনি বলেন, এই রকম তথ্য আমাদের কাছে নেই। ব্যালট গুণলেই সেগুলো দেখা যাবে। গণনার সময় যদি দেখা যায় সিল নেই, তাহলে তো সেগুলো বাতিল বলে গণ্য হবে।

টাঙ্গাইলের ভুয়াপুর পৌরসভায় হাতের কব্জি ও আঙুল কাটার ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের কাছে এখনো এ তথ্য নেই। সব কয়টি চ্যানেল দেখেছি। এগুলো হতে পারে হয়তো গুজব। এখন এই রকম কিছু যদি থাকে, আমাদের কাছে রিপোর্ট আসলে আমরা জানব। তাছাড়া আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তো আছেন। তারা আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন। প্রতি ঘণ্টায় ঘণ্টায় রিটার্নিং অফিসারের কাছ থেকে রিপোর্ট আসে। সেই রিপোর্টে এই ধরনের কোনো তথ্য নেই।

কত শতাংশ ভোট পড়তে পারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বরাবরের মতো বিশেষ করে মফস্বল এলাকার নির্বাচনে প্রত্যেকটায় উপস্থিতি ভালো। আমরা আশা করছি যে, এই ধাপে ৬০ শতাংশের নিচে হবে না। ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ হবে।

সূত্র : দেশ রূপান্তর
এন এ/ ৩০ জানুয়ারি

Back to top button