জাতীয়

ভিডিও কনফারেন্সে এসএসসির ফল প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা, ৩০ জানুয়ারি – ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ হয়েছে। ফল ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ফলাফল ঘোষণার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় রাজধানীর সেগুনবাগিচার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

গণভবন থেকে অনলাইনে যুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ল্যাপটপের বাটন টিপে ফলাফল ঘোষণা করেন।

করোনাকালীন পরিস্থিতিতে প্রথাগত শিক্ষা কার্যক্রমে বাধা ও ডিজিটাল পদ্ধতিতে শিক্ষা কার্যক্রমে একাধিক উদ্যোগের কথা উল্লেখ করেন তিনি। পাশাপাশি অসহায় পরিস্থিতির কারণে পরীক্ষা ছাড়াই বিশেষ পদ্ধতিতে এইচএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ নিয়ে বিরূপ মন্তব্য না করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

এ সময় শিক্ষামন্ত্রীর হাতে ফলাফল হস্তান্তর করেন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানগণ। ফলাফলের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভিড় না করার অনুরোধ করেন দীপুমনি।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, শিক্ষা সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান ছাড়াও বিভিন্ন বোর্ডের চেয়ারম্যান ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

আরও পড়ুন: উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর গেলেন মির্জা ফখরুল

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে এবার পরীক্ষা ছাড়া এসএসসি, জেএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের গড় মূল্যায়ন করা হয়েছে।

এবারও শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইটের পাশাপাশি যে কোনো মোবাইল থেকে এসএমএস করে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল জানা যাবে।

মোবাইলে এসএমএসের পাশাপাশি নিজ নিজ শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকেও ফল জানা যাবে।

এ ছাড়া জেলা প্রশাসক (ডিসি) এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) ই-মেইলে কেন্দ্র ও প্রতিষ্ঠানের ফল জানিয়ে দেওয়া হবে। প্রয়োজনে ডিসি ও ইউএনও অফিস থেকে ফলাফলের হার্ড কপি সংগ্রহ করা যাবে বলে আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি জানিয়েছে।

পরীক্ষা ছাড়াই ফল প্রকাশ করতে ২৭ জানুয়ারি আইন সংশোধন গেজেট প্রকাশ করে সরকার।

গত বছর ১১টি শিক্ষা বোর্ডের ১৩ লাখ ৬৫ হাজার ৭৮৯ জন শিক্ষার্থীর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল। পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল সে বছরের ১ এপ্রিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে শুরু করলে ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এরপর গত ৭ অক্টোবর এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী পঞ্চম ও অষ্টমের সমাপনীর মতো এইচএসসি পরীক্ষাও বাতিলের সিদ্ধান্তের কথা জানান।

জেএসসি-জেডিসির ফলের ২৫ এবং এসএসসির ফলের ৭৫ শতাংশ বিবেচনায় নিয়ে উচ্চ মাধ্যমিকের ফল ঘোষণা করা হচ্ছে।

সূত্র : দেশ রুপান্তর
এন এইচ, ৩০ জানুয়ারি

Back to top button