ফুটবল

প্রেমিকার সঙ্গে হোটেলে রাত কাটিয়ে বিপাকে রোনালদো

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর প্রেমিকা জর্জিনা রদ্রিগেজের ২৭তম জন্মদিন ছিলো গেলো বুধবার। জন্মদিন উপলক্ষে করোনাভাইরাসের বিধিনিষেধ উপেক্ষা করেই প্রেমিকার জন্মদিন পালনে ছুটে গেছেন রোনালদো। যার ফলে ভঙ্গ হয়েছে ইতালির করোনাকালীন ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা। যার ফলে ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাসে খেলা ক্রিশ্চিয়ানোকে শুনতে হচ্ছে সমালোচনা।

সংবাদমাদ্যমগুলোর খবর অনুযায়ী, জর্জিনার জন্মদিন পালনের জন্য নিজের ক্লাব জুভেন্টাসের হেড কোয়ার্টার্স থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে কোরমায়েরে একটি পাহাড়ি রিসোর্টে গিয়েছিলেন রোনালদো। করোনাভাইরাসের কারণে যা পুরাপুরি নিষিদ্ধ।

সংবাদ সংস্থা এএফপির পক্ষ থেকে এ বিষয়ে জানতে জুভেন্টাস ক্লাব কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তারা কোনও মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। তবে ঘটনার সত্যতা মিলেছে জর্জিনার ইন্সটাগ্রাম পোস্ট থেকে। যেখানে রোনালদোর সঙ্গে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন জর্জিনা।

আরও পড়ুন : টটেনহ্যামকে উড়িয়ে জয়ে ফিরল লিভারপুল

অবশ্য ঝামেলার কথা টের পেয়ে জর্জিনা সেই ভিডিও নিজের ইন্সটাগ্রাম থেকে সরিয়ে দিয়েছেন। তবে তার আগেই ইতালির সংবাদ মাধ্যমের নজরে পড়ে যায় পোস্ট করা ভিডিওটি। যা বেশ বড় ঘটনা হিসেবেই প্রকাশ পায় দেশটির সংবাদ মাধ্যমে।

ইতিলিয়ান পত্রিকা গ্যাজেটা দেলো স্পোর্ট জানিয়েছে, রোনালদো ও জর্জিনা গেলো মঙ্গলবার রাতে হোটেলে একসঙ্গেই ছিলেন। পরদিন বুধবার তারা একসঙ্গে তুষারপাতের মধ্যে ঘুরে বেড়িয়েছেন। পরদিনেই রোনালদো ফিরে গেছেন তুরিনের নিজ ক্লাবে।

করোনাভাইরাসের বর্তমান নিয়মানুযায়ী, রোনালদো-জর্জিনা জুটির তুরিন ছেড়ে আরেক শহরে যাওয়া শস্তিযোগ্য অপরাধ হয়েছে। এজন্য তাদেরকে ৪০০ ইউরো জরিমানাও করা হতে পারে।

প্রসঙ্গত, এর আগেও করোনাবিধি ভঙ্গ করে খবরের শিরোনাম হয়েছিলেন ৩৫ বছর বয়সী রোনালদো। গেলো অক্টোবরে পুরো জুভেন্টাস দল যখন আইসোলেশনে ছিল, তখন তিনি চলে গিয়েছিলেন পর্তুগাল। এরপর সেখানে তিনি করোনা পজিটিভ হন এবং ইতালিতে ফিরে ফের আইসোলেশনে বন্দি হন। তখন ইতালির ক্রীড়ামন্ত্রীও রোনালদোর সমালোচনা করেছিলেন।

সূত্র : আরটিভি
এন এইচ, ২৯ জানুয়ারি

Back to top button