পশ্চিমবঙ্গ

কৃষি আইন নিয়ে অবিলম্বে সর্বদলীয় বৈঠক চান মমতা

কলকাতা, ২৮ জানুয়ারি – ভারতের রাজধানী দিল্লীতে কৃষক বিক্ষোভ এখন তুঙ্গে। এই পরিপ্রেক্ষিতে কৃষি আইন নিয়ে দ্রুত সর্বদলীয় বৈঠকের দাবি জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গতকাল তিনি বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কেন্দ্রীয় সরকারকে একগুঁয়েমি ছেড়ে যত দ্রুত সম্ভব সব বিরোধী দলের সঙ্গে কেন্দ্রের কথা বলা উচিত।

ভারতীয় পর্যবেক্ষকদের অনেকেই মনে করছেন, মমতার দাবি মেনে সর্বদলীয় বৈঠক ডাকলে কৃষি আইন নিয়ে দেশটির বিরোধী দলের যুক্তিতে কেন্দ্র সরকার চাপে। বিরোধীদের কথায় কর্ণপাত না করে সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে মানুষের ওপরে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়ার বিরোধিতায় মমতা বরাবরই সরব। ভারতের নতুন কৃষি আইন প্রসঙ্গেও তিনি মনে করেন, একগুঁয়ে অবস্থান ছেড়ে কেন্দ্রের উচিত বাকিদের বক্তব্যকেও গুরুত্ব দেয়া।

মমতার বলছেন, এটা ইগো বা সংখ্যাগরিষ্ঠতার ব্যাপার নয়। নম্বর রয়েছে বলেই গায়ের জোর দেখানোটা গণতন্ত্রের শর্ত হতে পারে না। অন্যদের কথাও শুনতে হবে।

আরও পড়ুন: বিজেপির তৈরি মাঠে ফাঁক-ফোকর মেরামত করবেন শুভেন্দু

মঙ্গলবার কৃষকদের লালকেল্লা অভিযান ঘিরে উত্তাল হয়েছে দিল্লীর রাজপথ। লালকেল্লার প্রাচীরে আন্দোলকারীদের পতাকা লাগানোর ছবি আলোচনার কেন্দ্রে এসেছে রয়েছে। অনেকের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে মামলা করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

গতকাল বুধবার আন্দোলনকারীদের একাংশের প্রকৃত পরিচয় নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন মমতা। তার বক্তব্য, যে ব্যক্তি লালকেল্লায় পতাকা লাগানোর চেষ্টা করছিলেন, তাকে অতীতে কয়েকজন বড় মাপের বিজেপি নেতার সঙ্গে একাধিক বার দেখা গেছে। ফলে আন্দোলনের প্রকৃত অভিমুখ গুলিয়ে দেয়ার কারণেই মঙ্গলবারের ওই গোলমাল সংগঠিত হয়েছিল কি না, এদিন সেই প্রশ্নও তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

সূত্র : ইত্তেফাক
এন এইচ, ২৮ জানুয়ারি

Back to top button