দক্ষিণ এশিয়া

ভারত নেতাজির জন্মদিনে এবার ‘পরাক্রম দিবস’ পালন করবে

নয়াদিল্লি, ২২ জানুয়ারি- নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিন ২৩ জানুয়ারিকে ‘পরাক্রম দিবস’ হিসেবে পালন করবে ভারত সরকার। নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকীর আগে এ ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) এ ঘোষণা দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। আগামী ২৩ জানুয়ারি কলকাতায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আমন্ত্রণ জানিয়েছে নেতাজির পরিবার।

তবে দীর্ঘদিন ধরে নেতাজির জন্মদিনটি জাতীয় ছুটি হিসাবে ঘোষণা করার দাবি তুলেছিল তারই তৈরি রাজনৈতিক দল ফরওয়ার্ড ব্লক। এই মতকে স্বাগত জানিয়েছিল বামজোটের অন্যান্য শরিক দলও।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও দিনটিকে ‘দেশনায়ক দিবস’ ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে জাতীয় ছুটির জন্য আবেদন করেছিলেন। সম্প্রতি, প্রধানমন্ত্রীকে এই বিষয়ে চিঠিও লিখেছেন মমতা। তবে এবার নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কেন্দ্রীয় ও পশ্চিমবঙ্গ সরকার উভয়ই বছরজুড়ে উদযাপনের জন্য বিশেষ কমিটি গঠন করেছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের তৈরি ৮৪ সদস্যের কমিটিতে চেয়ারম্যান হিসেবে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ, মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ও দেবশ্রী চৌধুরীসহ সাতজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

কমিটিতে রাখা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, রাজ্য কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী, রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ, শুভেন্দু অধিকারী, সুনীল মণ্ডল, তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

এছাড়া আছেন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী, ভারতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক সুব্রত ভট্টাচার্য, অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী, অভিনেত্রী কাজল, পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় ও নেতাজি গবেষক পূরবী রায়।

কমিটিতে রাখা হয়েছে উড়িষ্যার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ক, উত্তর-পূর্ব ভারতের কয়েকটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে। কমিটিতে আছেন সুরকার এ আর রহমান এবং চন্দ্রকুমার বসুসহ নেতাজি পরিবারের বেশ কয়েকজন সদস্যকে। এছাড়াও আজাদ হিন্দ ফৌজের সঙ্গে বিশিষ্ট ব্যক্তিদেরও রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন :  ভ্যাকসিন কূটনীতিতে ভারতের কাছে কোণঠাসা চীন

কেন্দ্রীয় সরকারের কমিটির পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গ সরকারও বছরজুড়ে নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উদযাপনের জন্য যে কমিটি করেছে তাতে কমিটির চেয়ারপারসন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়সহ কমিটিতে আছেন বাংলার বিদ্বৎজ্জনেরা। আছেন দুই নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন ও অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়, নেতাজি পরিবারের সদস্য সুগত বসু, কবি শঙ্খ ঘোষ, শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, জয় গোস্বামী, সুবোধ সরকার, শিল্পী যোগেন চৌধুরীসহ আরও কয়েকজন।

দিনটিতে ঠিক নেতাজির জন্মলগ্নে অর্থাৎ ২৩ জানুয়ারি বেলা সোয়া ১২টায় শঙ্খ, উলুধ্বনি, আজান দেওয়ার আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী। পশ্চিমবাংলা তথা ভারত ও সমগ্রবিশ্বের বাঙালি এবং নেতাজি অনুরাগীদের কাছে এই আবেদন জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়া রাজ্য সরকারের তরফে একাধিক কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে বছরজুড়ে।

সূত্র: বাংলানিউজ

আর/০৮:১৪/২২ জানুয়ারি

Back to top button