বরিশাল

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার জন্য সুদিন আসছে : পরিকল্পনামন্ত্রী

বরিশাল, ২১ জানুয়ারি- পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার জন্য সুদিন আসছে। এক বছরের মধ্যে পদ্মা ও পায়রা সেতুর কাজ শেষ হলে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জন্য নতুন দিগন্ত উন্মোচন হবে। উন্নয়নে পাল্টে যাবে এই এলাকার চিত্র। দ্রুত উন্নয়ন হবে এই অঞ্চলে। দেশের সার্বিক প্রবৃদ্ধি ১ থেকে ২ ভাগ বেড়ে যাবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বরিশাল সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে জনশুমারি ও গৃহগণনা-২০২১ উপলক্ষ্যে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি।

বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকারের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী আরও বলেন, ভাঙ্গা থেকে পায়রা সমুদ্র বন্দর পর্যন্ত রেল প্রকল্প অনুমোদন হয়ে আছে। পায়রা বন্দরের প্রয়োজনেই রেল লাইন হতে হবে। মহাসড়কগুলো ফোরলেনে উন্নীত করার প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। দিন দিন দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, ২০০৯ সালে বৈদেশিক মূদ্রার রিজার্ভ ছিলো ৯ বিলিয়ন ডলার। বর্তমানে রিজার্ভ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ বিলিয়ন ডলারে। মাথা পিছু আয় ছিলো ৬শ’ ডলার। এখন মাথা পিছু আয় ২ হাজার ডলার। শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বের কারণে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বরিশালের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প গুরুত্ব সহকারে বাস্তবায়ন করার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছরে ২০ বছর ছিলো সামরিক ও স্বৈরশাসন। ৩০ বছরের মধ্যে গত ১২ বছরে দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। অনুষ্ঠানে জনশুমারি ও গৃহগণনা-২০২১ সফল করার জন্য সকলের সহযোগীতা কামনা করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, তার পরিষদের আড়াই বছর হতে চলছে। অথচ এখনও মন্ত্রণালয় থেকে কোন প্রকল্প ছাড় করা হয়নি। কোন উন্নয়ন বরাদ্দও নেই। সারা দেশে উন্নয়ন হচ্ছে। অথচ বরিশাল বিভাগীয় সদরে তেমন উন্নয়ন নেই। উন্নয়নে বরিশালের মেয়র ব্যর্থ হলে শেখ হাসিনা ব্যর্থ হবেন। এর দায়ভার সরকারের। তাই বরিশালের মানুষের আশা-আকাঙ্খা পুরনে মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়া প্রকল্প পাশ করার পাশাপাশি বেশি বেশি করে উন্নয়ন বরাদ্দ দাবি করেন মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ।

আরও পড়ুন :  কারাগারে বন্দির সংখ্যা ৮২ হাজার ৬৫৪ জন

এছাড়া পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী এবং জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন।

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন জনশুমারি ও গৃহগণনা-২০২১ এর প্রকল্প পরিচালক কবির উদ্দীন আহাম্মদ এবং পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলামসহ স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তা, সুশীল সমাজ এবং সাংবাদিকরা।

সূত্র: বিডি প্রতিদিন

আর/০৮:১৪/২১ জানুয়ারি

Back to top button