কুমিল্লা

কুমিল্লায় ২৫ বছর পর ব্যবসায়ী হত্যায় ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড

কুমিল্লা, ২৭ নভেম্বর – কুমিল্লা বরুড়ায় ফার্নিচার ব্যবসায়ী শহীদ উল্ল্যাহ হত্যা মামলায় চারজনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই মামলায় আরেক আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ তৃতীয় আদালতের বিচারক রোজিনা খান এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- বরুড়া উপজেলার পরানপুর গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে ইউছুফ, বনি আমিন, ইউছুফের ভাতিজা সোলায়মান এবং ইউছুফের শ্যালক আব্দুল হক। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ইউসুফের বড় বোন রজ্জবী বিবি।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (এপিপি) নূরুল ইসলাম রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আদালত সূত্র জানা যায়, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ১৯৯৮ সালের ২১ মে ফার্নিচার ব্যবসায়ী মো. শহীদ উল্ল্যাহর সঙ্গে আসামিদের বাগবিতণ্ডা হয়। এর জেরে ওইদিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে তারা শহীদ উল্ল্যাহকে পরানপুর বাজারের পশ্চিম পাশে বিরোধপূর্ণ জমিতে ডেকে নিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

পরদিন নিহতের ছোটভাই আমান উল্ল্যাহ বাদী হয়ে ১৫ জনকে আসামি করে বরুড়া থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। পরবর্তীতে তদন্তকারী কর্মকর্তা বরুড়া থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) সৈয়দুল মোস্তফা ইউসুফসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

পরে মামলায় ইউসুফসহ পাঁচজনের অপরাধ প্রমাণিত হলে চারজনের মৃত্যুদণ্ড এবং একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করে আদালত। বাকী ১০ আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: জাগো নিউজ
আইএ/ ২৭ নভেম্বর ২০২৩

Back to top button