ইউরোপ

ফ্রান্সে শিশুদের এলোপাথাড়ি ছুরিকাঘাত, আটক ১

প্যারিস, ০৮ জুন – ফ্রান্সের একটি পার্কে ছুরি নিয়ে শিশুদের ওপর এলোপাতাড়ি হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলার শিকার বেশ কিছু শিশুর অবস্থা সঙ্কটজনক বলে জানা যাচ্ছে। খবরে বলা হচ্ছে এই শিশুরা অ্যানেসি শহরের এক পার্কে সকালবেলা যখন খেলছিল তখন ছুরি হাতে এক ব্যক্তি তাদের আক্রমণ করে।

স্থানীয় সূত্রগুলো বলছে ছয়জন শিশু আহত হয়েছে এবং তাদের বয়স প্রায় তিন বছর। পুলিশ জানাচ্ছে হামলাকারী ৪৫ বছর বয়স্ক একজন সিরীয়, যে ফ্রান্সে শরণার্থী হিসাবে থাকার জন্য আবেদন করেছিল।

একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তিও আহত হয়েছে। তার অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

প্যারিস থেকে বিবিসির সংবাদদাতা হিউ স্কোফিল্ড জানাচ্ছেন এই শিশুদের দেখাশোনা করেন যারা তারা সকালবেলা বাচ্চাদের বেড়াতে নিয়ে গিয়েছিলেন দক্ষিণ পূর্ব ফ্রান্সের অ্যানেসি শহরে হ্রদের ধারের এক পার্কে।

বাচ্চারা যখন পার্কে ছিল তখন হঠাৎ এক ব্যক্তি ছুরি হাতে সেখানে হাজির হয়ে তাদের ছুরি মারতে শুরু করে। কোন কোন বাচ্চা তাদের পুশচেয়ারে বাঁধা ছিল। ঘটনা ঘটে স্থানীয় সময় সকাল ৯:৪৫ মিনিট নাগাদ।

বাচ্চাদের আঘাত করার পর ওই ব্যক্তি সেখান থেকে দৌড়ে পালায় এবং কাছেই হাঁটছিলেন একজন বয়স্ক মানুষ, তাকেও সে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাকে থামাতে তার পায়ে গুলি করে এবং তাকে ধরে ফেলে। দুজন শিশু এবং বৃদ্ধ ব্যক্তির প্রাণ বাঁচাতে চিকিৎসকরা লড়ছেন বলে জানাচ্ছে সংসবাদ সংস্থা এএফপি।

এএফপি বলছে তাদের খবর অনুযায়ী চারজন শিশুসহ মোট পাঁচজন আহত হয়েছে।

আহতের সংখ্যা নিয়ে কিছু বিভ্রান্তি রয়েছে। এর আগে রয়টার্স বার্তা সংস্থা জানায় সঙ্কটজনক ভাবে আহত তিনজনই শিশু।

ফ্রান্সের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে আটক ব্যক্তি পুলিশের কাছে নিজেকে সিরীয় শরণার্থী হিসাবে পরিচয় দিয়েছে। ফ্রান্সের পুলিশ জানাচ্ছে সন্দেহভাজন আটক ব্যক্তির বিরুদ্ধে সহিংসতার বা কোন ইসলামী গোষ্ঠির সাথে সংশ্লিষ্টতার কোন রেকর্ড তাদের কাছে নেই। কিন্তু এই ঘটনার পেছনে ধর্ম কোনভাবে কাজ করেছে- সে প্রশ্ন অনেকেই তুলছে। তবে এধরনের কোন যোগাযোগ বা কারণ এখনও জানা যায়নি।

ফ্রান্সে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ নিয়ে কাজ করে যে কৌঁসুলি বিভাগ তাদের এখনও পর্যন্ত তদন্তের কোন নির্দেশ দেয়া হয়নি। এ থেকে মনে হয় কর্তৃপক্ষ এখনও এই ঘটনাকে ইসলামী কোন গোষ্ঠীর উগ্রবাদী মতাদর্শে অনুপ্রাণিত কোন কাজ বলে মনে করছে না।

এই খবর আসার পরপরই ফ্রান্সের সংসদে এক মিনিটের নীরবতা পালন করা হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপি পার্লামেন্টের স্পিকার ইয়ায়েল ব্রন-পিভেকে উদ্ধৃত করে বলেছে তিনি জাতীয় সংসদের অধিবেশন চলার সময় সদস্যদের বলেন: “এই ঘটনায় শিশুরা সঙ্কটজনকভাবে আহত হয়েছে। তাদের জন্য এবং তাদের পরিবারগুলোর জন্য সংসদে সবাইকে আমি এক মিনিটের নীরবতা পালনের অনুরোধ করছি।”

ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী এলিজাবেথ বর্ন ঘটনাস্থলে গেছেন। দেশটির প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রঁ এক টুইটবার্তায় এই হামলার ঘটনাকে “কাপুরষোচিত” বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলছেন এই ঘটনায় “সারা দেশের মানুষ স্তম্ভিত”।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ০৮ জুন ২০২৩

Back to top button