কানাডা

কানাডা-বাংলাদেশ চেম্বারের শুভেচ্ছাদূত হলেন নিপুণ

মিঠুন আল মামুন

টরন্টো, ২৭ ফেব্রুয়ারি – ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নিপুণ আক্তার। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অর্ধশতাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন। উপহার দিয়েছেন বহু ব্যবসা সফল সিনেমা। এবার তিনি কানাডা-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (সিবিসিসিআই) শুভেচ্ছাদূত হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এ অভিনেত্রী বলেন, ‘এটা আমার জন্য একটি বিশেষ সম্মান ও দায়িত্ব। আমি চেষ্টা করব আন্তরিকতা নিয়ে কানাডা-বাংলাদেশ ট্রেড এক্সপো ২০২৩-এর শুভেচ্ছাদূত হিসেবে নিজের দায়িত্ব পালন করতে।’

জানা যায়, চলতি বছরের ৬-৮ অক্টোবর কানাডার টরন্টোয় হতে যাচ্ছে বাণিজ্য উৎসব। সেই উৎসবের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ করবেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী অভিনেত্রী নিপুণ। দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য বিনিময়ের মাধ্যমে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উত্তরোত্তর উন্নয়নের লক্ষ্যে হোটেল শেরাটনে গত ৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় সিবিসিসিআই আয়োজিত ‘কানাডা-বাংলাদেশ ট্রেড এক্সপো ২০২৩’-র অনুষ্ঠান।

নিপুণ সিনেমায় যেমন ব্যস্ত, একইভাবে সক্রিয় চলচ্চিত্র শিল্পীদের স্বার্থরক্ষার সংগঠন শিল্পী সমিতির নেতৃত্বেও। শিল্পীদের কাছেও বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন সময়ের সঙ্গে সঙ্গে। একজন ব্যবসায়ী হিসেবেও সফল তিনি। একইসঙ্গে সামলান সংসারও।

২০০৬ সালে ‘রত্নগর্ভা মা’ ছবির মাধ্যমে নিপুণের চলচ্চিত্র যাত্রা শুরু হয়েছিল। যদিও সে ছবিটি আজও মুক্তি পায়নি। তাই একই বছর মুক্তি পাওয়া এফ আই মানিক পরিচালিত ‘পিতার আসন’কে নিপুণের অভিষেক ছবি হিসেবে ধরা হয়। পরের বছরই শাহ আলম কিরণ পরিচালিত ‘সাজঘর’ ছবিতে অভিনয় করে ক্যারিয়ারের প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান এই নায়িকা। ওই ছবিতে তার সহশিল্পী ছিলেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী ও প্রয়াত নায়ক মান্না।

এরপর ২০০৯ সালে মহম্মদ হান্নানের ‘চাঁদের মত বউ’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় জাতীয় পুরস্কারটি লাভ করেন নিপুণ। সে ছবিতে নিপুণের সহশিল্পী ছিলেন তখনকার সুপারহিট জুটি রিয়াজ ও শাবনূর। যদিও দুটি পুরস্কারই নিপুণ অর্জন করেন পার্শ্বচরিত্র ক্যাটাগরিতে।

Back to top button