দক্ষিণ এশিয়া

শ্রীলঙ্কায় ‘যোগ্যতা অর্জনের’ পরীক্ষায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি

কলম্বো, ২৩ জানুয়ারি – শ্রীলঙ্কায় শুরু হয়েছে ২০২২ জি.সি. ই. অ্যাডভান্সড লেভেল (উন্নত স্তর) তথা যোগ্যতা অর্জনের পরীক্ষা। সোমবার (২৩ জানুয়ারি) এ পরীক্ষায় বসছেন দেশটির তিন কারাবন্দী।

তাদের মধ্যে রয়েছে একজন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদিও।
দেশটির অনলাইন গণমাধ্যম নিউজ ফার্স্ট এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। দেশটির নিউ ম্যাগাজিন কারাগারে স্থাপিত পরীক্ষা কেন্দ্রে অ্যাডভান্সড লেভেলের আওতায় আর্টস স্ট্রিম বিষয়ে কারাবন্দীরা পরীক্ষা দেবেন।

জাফনা কারাগারেও এক বন্দী এ পরীক্ষায় অংশ নেবেন বলে জানানো হয়েছে প্রতিবেদনে। তিনি ছাভাকছড়ির এক পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

জি.সি. ই. অ্যাডভান্সড লেভেল পরীক্ষাটি মূলত ১৬ বার এর বেশি বয়সীদের জন্য অনুষ্ঠিত হয়। এটি যুক্তরাজ্যে যাওয়ার যোগ্যতা অর্জনের জন্য আয়োজিত হয়। দুই বছর ধরে এ পরীক্ষার জন্য প্রার্থীরা পড়াশোনা করেন। উত্তীর্ণরা যুক্তরাজ্যে গিয়ে উচ্চ শিক্ষা অর্জনে সুযোগ পান। এ ছাড়া বিশ্বের অন্যান্য দেশ ভ্রমণেও যোগ্যতা অর্জন করেন।

কমিশনার জেনারেল অব এক্সামিনেশন অমিথ জয়সুন্দরা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, ২০২২ জি.সি. ই. অ্যাডভান্সড লেভেল পরীক্ষার সময় ৩ ঘণ্টা। পরীক্ষার্থীদের অতিরিক্ত ১০ মিনিট করে সময় দেওয়া হবে। সারা দেশ থেকে মোট ৩ লাখ ৩১ হাজার ৭০৯ জন আর্টস স্ট্রিম বিষয়ের পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন।

পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ২ লাখ ৭৮ হাজার ১৯৬ জন পরীক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করছে স্কুল থেকে। বাকি ৫৩ হাজার ৫১৩ জন বেসরকারি আবেদনকারী। এছাড়া, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ২৬৩ জন পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন।

২ হাজার ২০০ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত এ পরীক্ষা পরিদর্শন করবেন ২৫ হাজার ১৫১ শিক্ষক। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ জি.সি. ই. অ্যাডভান্সড লেভেলের পরীক্ষা শেষ হবে।

পরীক্ষার্থীদের অংশ গ্রহণের সুবিধায় বিশেষ পরিবহন কর্মসূচি চালু করা হয়েছে বলে জানান ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্ট কমিশনের মহাপরিচালক নীলান মিরান্ডা। এ ছাড়া শ্রীলঙ্কা রেলওয়ের ডেপুটি সুপারিন্টেনডেন্ট এন.জে. ইন্ডিপোলেজ জানিয়েছেন, পরীক্ষা উপলক্ষে সোমবার থেকে ১৬টি অতিরিক্ত ট্রেন চালু করা হয়েছে।

জি.সি. ই. অ্যাডভান্সড লেভেল পরীক্ষার নিরাপত্তা রক্ষায় পুলিশ বাহিনী থেকে ব্যাপক সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশের মুখপাত্র এসএসপি নিহাল থালডুয়া জানান, ১ হাজার ৬২৫ জন পুলিশ কর্মকর্তা পরীক্ষা কেন্দ্র এলাকায় দায়িত্ব পালন করবেন।

শ্রীলঙ্কায় বিদ্যুৎ সমস্যা প্রকট। অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দেওয়ার পর থেকে দৈনিক বিদ্যুৎ বিভ্রাট হচ্ছে দেশটিতে। তবে অ্যাডভান্স লেভেল পরীক্ষা চলাকালীন বিদ্যুৎ সংকট কমিয়ে আনা হবে বলে জানিয়েছে সিলন ইলেকট্রিসিটি বোর্ড। শ্রীলঙ্কার পাবলিক ইউটিলিটি কমিশনের চেয়ারম্যান জনকা রত্নায়েকেও এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

নির্বাচনী প্রচারাভিযানে যাতে পরীক্ষায় কোনো ব্যাঘাত না ঘটে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে প্রার্থীদের অনুরোধ জানিয়েছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন।

সূত্র: বাংলানিউজ
এম ইউ/২৩ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button