ফুটবল

আরবের বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ হাকিমি

রিয়াদ, ২৩ জানুয়ারি – কাতার বিশ্বকাপে রীতিমতো রূপকথার গল্প লিখেছে মরক্কো। পুরো বিশ্ব ফুটবলকে চমকে দিয়ে আফ্রিকান দেশ হিসেবে প্রথমবার সেমিফাইনালে খেলে দলটি। ফাইনালে ওঠার মঞ্চেও লড়াইটা ছেড়ে দেয়নি হাকিমি-জিয়েশরা। ফ্রান্সের সঙ্গে লড়েছে সমানে সমান।

আর মরক্কোর এ রূপকথার বড় নায়ক ছিলেন পিএসজির ডিফেন্ডার আশরাফ হাকিমি। পুরো বিশ্বকাপে তার অসাধারণ পারফর্মেন্সের কারণে আরবের বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদের পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। শনিবার সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে ‘জয় অ্যাওয়ার্ড’ অনুষ্ঠানে হাকিমির হাতে আরবের বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদের পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

পুরস্কারের জন্য ডাকা হলে হাকিমি তার মাকে সঙ্গে নিয়ে মঞ্চে ওঠেন। ট্রফি হাতে নিয়েই তা মাকে উৎসর্গ করে তার হাতে তুলে দেন।

২০২২ সালের পারফরম্যান্সে আরব দেশগুলোর অন্যান্য ক্রীড়াবিদকে ছাপিয়ে জিতলেন প্লেয়ায় অব দ্য ইয়ার পুরস্কার।

মরক্কোর ফুটবলপ্রেমীদের ধন্যবাদ জানিয়ে হাকিমি তার বক্তব্যে বলেন, এখানে এসে সত্যিই খুশি আমি। পিএসজি এবং আমার দেশ মরক্কোকেও পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ। এখানে এসে নিজেকে খুব গর্বিত মনে হচ্ছে।

ইউরোপিয়ান ফুটবলে হাকিমি বেশ পরিচিত মুখ। খেলছেন লিগ ওয়ান চ্যাম্পিয়ন পিএসজির হয়ে। এর আগেও নজর কেড়েছেন ইউরোপীয় বেশকিছু ক্লাবের।

পিএসজির জার্সিতে গত বছর ৩৮ ম্যাচ খেলে ৪টি গোল ও ৬ টি অ্যাসিস্ট করেছেন এই ডিফেন্ডার। অন্যদিকে জাতীয় দলে ২০ ম্যাচে ৩ গোল করেন তিনি। কাতার বিশ্বকাপ থেকে দেশে ফেরার পর তাকে ও তার সতীর্থদের বীরোচিত সংবর্ধনা দেয়া হয়।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ২৩ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button