জাতীয়

রমজানের আগে সারা মাসের পণ্য একসঙ্গে কিনবেন না

চট্টগ্রাম, ২১ জানুয়ারি – বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, রমজানের আগে সারা মাসের পণ্য একসঙ্গে কিনবেন না। তাহলে বাজারে প্রভাব পড়বে। হঠাৎ করে বেশি পণ্য কিনলে বাজারে ঘাটতি দেখা দিতে পারে। কিন্তু ধীরে ধীরে প্রয়োজনীয় পণ্য কিনলে কোনো চাপ পড়বে না। পর্যাপ্ত পণ্য আছে রমজানের।

আজ শনিবার চট্টগ্রামে একটি অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে দি হংকং অ্যান্ড সাংহাই ব্যাংকিং কর্পোরেশন (এইচএসবিসি) এবং এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন যৌথভাবে ‘এইচএসবিসি-এইউডাব্লিউ স্কুল অব অ্যাপারেল অ্যান্ড রিটেইল ম্যানেজমেন্ট’ প্রোগ্রাম উদ্বোধন করেন তিনি। এইচএসবিসির জনকল্যাণমূলক সহায়তায় অর্থায়নকৃত এই প্রোগ্রামটি একটি আন্তর্জাতিক পর্যায়ের একাডেমিক কমিটি দ্বারা পরিচালিত হবে। এর মাধ্যমে অ্যাপারেল ও রিটেইল ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে এক বছর মেয়াদি একটি মাস্টার অব সায়েন্স প্রোগ্রাম চালু হবে। আগামীর ফ্যাশনে নারী নেতৃত্বকে বেগবান করবে এই প্রোগ্রাম।

‘এইচএসবিসি-এইউডাব্লিউ স্কুল অফ অ্যাপারেল: লিডিং দি ফিউচার অফ ফ্যাশন’ শিরোনামের এই আয়োজনে আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন চ্যান্সেলর চেরি ব্লেয়ার, এইচএসবিসির দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার হেড অব কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্মকর্তা অ্যামান্ডা মারফি, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের প্রতিষ্ঠাতা কামাল আহমেদ, দি ডেইলি স্টার সম্পাদক ও প্রকাশক মাহফুজ আনাম, বিজিএমইএ প্রেসিডেন্ট ফারুক হাসান, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন উপাচার্য ড. রুবানা হক, এইচএসবিসি বাংলাদেশ সিইও মো. মাহবুব উর রহমান।

প্রোগ্রামটির আওতায় এইউডব্লিউর শিক্ষার্থীরা ১৩টি কোর্সে অংশ নেয়ার সুযোগ পাবেন। প্রথম বছরে এই প্রোগ্রামে ৫০ জন শিক্ষার্থীকে ভর্তি করা হবে। ম্যাক ল্যাব ডিজাইন, কারিকুলাম, ফ্যাকাল্টি, আইটি ও ক্লাসের অবকাঠামোর ক্ষেত্রে সহায়তা প্রদানসহ সর্ম্পূণ স্কুলটি স্থাপনে সহায়তা করবে এইচএসবিসি।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, প্রোগ্রামটি নারীদের পেশাদার ও নেতৃত্বেও দক্ষতা বিকাশে সহায়তা করবে। এটি অন্তর্ভুক্তি মাধ্যমে নারীদের বিভিন্ন সুযোগ গ্রহণকে আরও সহজ করে তুলছে এবং বাংলাদেশ ও এর জনগোষ্ঠীর জন্য দীর্ঘমেয়াদী প্রবৃদ্ধিকে উৎসাহিত করছে।

চেরি ব্লেয়ার বলেন, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ও একাডেমিয়া কীভাবে গঠনমূলক প্রীতিতে একে অপরকে সহযোগিতা করতে পারে, এটি তার একটি চমৎকার উদাহরণ। এখানে অগ্রগামী ভূমিকা পালনের জন্য আমি এইচএসবিসি গ্রুপ চেয়ারম্যান মার্ক টাকার এবং বাংলাদেশে তাঁর টিমকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

অ্যামান্ডা মারফি বলেন, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন-এর সাথে সম্মিলিতভাবে এইচএসবিসি-এইউডব্লিউ স্কুল অব অ্যাপারেল এবং মাস্টার্স প্রোগ্রামটি চালু করতে পেরে আমরাও আনন্দিত। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের বৃহত্তম রপ্তানি শিল্পে ক্রমাগত উদ্ভাবন চালিয়ে যাওয়ার জন্য ভবিষ্যৎ প্রজন্মের মেধাবীদের দক্ষ করে গড়ে তুলতে পারব।

সূত্র: সমকাল
আইএ/ ২১ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button