ইউরোপ

‘এই মুহূর্তে ইউক্রেনের ট্যাংক দরকার’

কিয়েভ, ২১ জানুয়ারি – ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার পূর্বে আমাদের ট্যাংক দরকার। কালক্ষেপণ করা ঠিক হবে না। তা হলে রাশিয়ার হামলায় আরও বিধ্বস্ত হয়ে যাবে কিয়েভ। সিএনএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারের সময় এসব কথা বলেন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত ইউক্রেনের রাষ্ট্রদূত ওকসানা মারকারোভা।

মারকারোভা সিএনএনকে বলেন, ‘ওই ট্যাংকগুলো রাশিয়ার হামলা থেকে আমাদের প্রতিরক্ষার জন্য খুবই প্রয়োজন।’

এ সময় মারকারোভা দাবি করেন, আসন্ন বসন্তে মৌসুমে ইউক্রেনে বড় ধরনের হামলার পরিকল্পনা রয়েছে রাশিয়ার। সেই হামলা নস্যাৎ করতেও এই ট্যাংকগুলো আমাদের দরকার।

সম্প্রতি জার্মানির পক্ষ থেকে ইউক্রেনকে লেপার্ড-২ ট্যাংক সরবরাহ নিয়ে বেশ আলোচনা চলছে। এ নিয়ে বড়োসড়ো বৈঠকও করেছে ইউরোপের প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা। তবে জার্মানি এখনো স্পষ্ট কিছু জানায়নি। দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, ‘লেপার্ড ট্যাংক সরবরাহের ব্যাপারে কখন সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে এবং সিদ্ধান্ত কী হবে তা এখনো বলতে পারছি না।’

তবে এ ট্যাংক পেতে মরিয়া ইউক্রেন। এর সাহায্যে রাশিয়াকে অনেকটা দমাতে পারবে বলে ধারণা দেশটির। এদিকে ইউক্রেনকে ট্যাংক সরবরাহ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানির মধ্যে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। জার্মান কর্মকর্তারা ইঙ্গিত দিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্র কিয়েভকে এম১ আব্রামস ট্যাংক সরবরাহ না করা পর্যন্ত লেপার্ড ট্যাংক দেবে না বার্লিন।

যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, জার্মানির ট্যাংক যুক্তরাষ্ট্রের ট্যাংকের চেয়ে বেশি শক্তিশালী। এ ব্যাপারে মারকারোভা সিএনএনকে জানিয়েছেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং পর্যালোচনা চলছে।

সম্প্রতি, ইউক্রেনকে পেট্রিয়ট বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পাঠানোর অনুরোধ জার্মানি শুরুতে প্রত্যাখ্যান করেছিল। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে পেট্রিয়ট পাঠানোর সঙ্গে সঙ্গে জার্মানির অবস্থানের পরিবর্তন ঘটে। হয়তো ট্যাংক সরবরাহ করার প্রশ্নেও জার্মানি যুক্তরাষ্ট্রকেই নেতৃত্বে দেখতে চায়।

এদিকে ইউক্রেনে ট্যাংক সরবরাহরে ব্যাপারে ইউরোপ ও পশ্চিমাদের সতর্ক করে দিয়েছে রাশিয়া। দেশটির দাবি, ইউক্রেনকে ট্যাংক সরবরাহ করা হলে এই সংঘাত বেড়ে যাবে আরও কয়েকগুণ।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/২১ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button