জাতীয়

কয়েক বছরের মধ্যে রেলসেবা উন্নত বিশ্বের মতোই হবে

চট্টগ্রাম, ১৮ জানুয়ারি – রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, রেলের চলমান প্রকল্পগুলো চালুর মাধ্যমে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে দেশের যোগাযোগ খাতে রেলওয়ে উন্নত বিশ্বের মতোই সুযোগ সুবিধা পাবে যাত্রীরা।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে নগরের রেলওয়ে পলোপ্রাউন্ড মাঠে বাংলাদেশ রেলওয়ের ৪২তম বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রেলপথ মন্ত্রী বলেন, দেশের ক্রীড়াক্ষেত্রে বাংলাদেশ রেলওয়ের সুনাম দীর্ঘদিনের। রেলকর্মীরা যাত্রীসেবার পাশাপাশি ক্রীড়া নৈপূণ্য প্রদর্শনের মাধ্যমে সুস্থ জাতি গঠনের প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে।

করোনাভাইরাসের কারণে টানা দুই বছর এই প্রতিয়োগিতার আয়োজন হয়নি। আগামীবার থেকে এই প্রতিযোগিতার হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে এনে ক্রীড়াক্ষেত্রে রেলের অংশগ্রহণ বাড়াতে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন তিনি।
রেলপথ মন্ত্রী বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ে অতীতের যেকোনও সময়ের চেয়ে সেবার মান বাড়িয়েছে। দেড় দশক আগেও রেলওয়ের কার্যক্রমকে সংকুচিত করে রেলকে ধ্বংসের অপচেষ্টা করা হয়েছিল। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর রেলওয়েতে বিনিয়োগ বাড়ানোর মাধ্যমে রেলকে গণমানুষের অন্যতম প্রধান যোগাযোগ মাধ্যমে পরিণত করেছে।

চলতি বছরের শেষ দিকে দোহাজারী-গুনদুম পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প উদ্বোধনের মাধ্যমে ঢাকা থেকে সরাসরি কক্সবাজার পর্যন্ত ভ্রমণ করা সম্ভব হবে।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ও বাংলাদেশ রেলওয়ে ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের প্রধান পৃষ্ঠপোষক মো. কামরুল আহসান, বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক ও বাংলাদেশ রেলওয়ে ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, পূর্বাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী ও বাংলাদেশ রেলওয়ে ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মিঞা।

দুই দিনব্যাপী এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় মোট ৮টি দলের ক্রীড়াবিদরা ভিন্ন ভিন্ন ইভেন্টে অংশ নেবেন। দলগুলো হলো, লালমনির হাট দল (হলুদ দল), সদর দপ্তর/পশ্চিম দল (সাদা রং), পাহাড়তলী দল (লাল রং), চট্টগ্রাম দল (ডিপ গ্রীণ), পাকশী দল (গোলাপী রং), সৈয়দপুর দল (হালকা নীল রং), সদর দপ্তর/পূর্ব (রক্তবর্ণ লাল রং) এবং ঢাকা দল (বেগুনী রং)।

সূত্র: বাংলানিউজ
আইএ/ ১৮ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button