পশ্চিমবঙ্গ

‘৫০ শতাংশেরও বেশি মানুষ আমাদের ভোট দেন না’, সংগঠন বাড়াতে মোদীর টোটকাই ভরসা দিলীপের

কলকাতা, ১৮ জানুয়ারি – মঙ্গলবার দিল্লিতে শেষ হয়েছে বিজেপি-র দু’দিনের কার্যনির্বাহী সমিতির বৈঠক। সেই বৈঠকে বিজেপি কর্মীদের উদ্দেশে একাধিক বার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ, কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন নীতিগুলি সম্পর্কে সচেতন করতে জনগণের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করতে হবে। পাশাপাশি আরও বেশি সংখ্যক মানুষকে দলের সঙ্গে যুক্ত করতে ‘বিজেপি জোড়ো’ প্রচার শুরুর পরামর্শও দিয়েছেন মোদী। বুধবার এই ইস্যুতেই মন্তব্য করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

নিত্যদিনের মতো প্রাতঃভ্রমণে বের হন দিলীপ ঘোষ। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি। দিল্লিতে বিজেপির বৈঠক নিয়ে তিনি বলেন, “লোকসভার প্রস্তুতি চলছে। তার জন্য প্রধানমন্ত্রী বলেছেন যে-যে এলাকায় আমাদের পার্টি দুর্বল আছে সেখানে গিয়ে জনসাধারণের সঙ্গে সম্পর্ক বাড়াতে হবে। বুথ স্তর পর্যন্ত সেই কাজ চলছে। মন্ত্রী ও সমস্ত নেতারা এই কাজ করছেন।” এরপর রাজ্যের পঞ্চায়েত ভোট প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা বলেন, “পশ্চিমবঙ্গে পঞ্চায়েত প্রস্তুতি আমরা শুরু করেছি। আমরা যে মানুষের উপর দুর্নীতি হয়েছে,গরিব মানুষকে লুঠ করা হয়েছে, তাদের অধিকারের জন্য আমরা আন্দোলন করছি। সারা পশ্চিমবাংলার মানুষ ক্ষোভে ফেটে পড়ছেন। এর ফলে তৃণমূলের নেতা মন্ত্রীরা বিক্ষোভের মুখে পড়ছেন। যারা এতদিন চুরি করে খাচ্ছিলেন ভাবছিলেন এরকম চলবে আজকে মানুষ চোখে চোখ রেখে কথা বলছে। মন্ত্রীদের সামনে মানুষকে মার খেতে হচ্ছে। রাস্তা অবরোধ হচ্ছে। প্রত্যেকটি তৃণমূলের এমএলএ এমপি আজ বিক্ষোভের মুখে পড়ছেন। এটা পশ্চিমবাংলার আজকের পরিস্থিতি। বিজেপি এটা করেছে, মানুষকে সাহস যুগিয়েছে।”

এখানেই শেষ নয়। কংগ্রেসের ভারতজোড়ো যাত্রার অনুকরণে ‘বিজেপি জোড়ো’ যাত্রার ডাক প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, “প্রধানমন্ত্রী বলেছেন যাঁরা-যাঁরা এখনো বিজেপির সঙ্গে যুক্ত হননি, প্রায় ৫০ শতাংশের বেশি মানুষ আমাদের ভোট দেন না এখনও, তাদের কাছে পৌঁছতে হবে। তাঁরা মোদীজীর কাজে খুশি আছেন। কিন্তু পার্টির সঙ্গে যুক্ত নন বা ভোটার হননি। তাঁদেরকে সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত করতে হবে। ভোটার বানাতে হবে। পার্টিকে ব্যাপকভাবে বাড়াতে হবে যেমন আমরা গুজরাটে করেছি।”

সূত্র: টিভি নাইন
আইএ/ ১৮ জানুয়ারি ২০২৩

 

Back to top button