দক্ষিণ এশিয়া

পরমাণু শক্তিধর দেশ হয়েও ভিক্ষা করা লজ্জাজনক

ইসলামাবাদ, ১৬ জানুয়ারি – নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে রয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার পরমাণু শক্তিধর দেশ পাকিস্তান। পরিস্থিতি এতোটাই সংকটময় যে, দেশটিতে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ তলানিতে ঠেকেছে এবং খেলাপি হওয়ার হাত থেকে বাঁচতে পাকিস্তানকে বিদেশি সহায়তার দিকে তাকিয়ে থাকতে হচ্ছে।

এই পরিস্থিতিতে পরমাণু শক্তিধর দেশ হয়েও ভিক্ষা করা পাকিস্তানের জন্য লজ্জার বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ। রোববার (১৫ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমাদের এক হাতে পারমাণবিক বোমা এবং অন্য হাতে ভিক্ষার বাটি থাকাটা লজ্জার বিষয় বিষয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ। গত শনিবার তিনি এই মন্তব্য করেন।

দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল বলছে, গত শনিবার পাকিস্তান অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিসের (পিএএস) প্রবেশনারি অফিসারদের পাসিং-আউট অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন শেহবাজ শরিফ। সেখানে তিনি বলেন, (বিদেশিদের কাছে) আরও ঋণ চাওয়ার বিষয়টি সত্যিই তাকে বিব্রত করেছে।

শেহবাজ আরও বলেন, পাকিস্তানের অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য বিদেশি ঋণ খোঁজা সঠিক কোনও সমাধান নয় কারণ ঋণ ফিরিয়ে দিতে হয়। ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)-এর নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, অতীতে ‘বিশৃঙ্খলা এবং বিক্ষোভে সময় নষ্ট করা হয়েছে’।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জন করা সম্ভব এবং বিদেশি ঋণও এড়ানো সম্ভব যদি ‘বাস দ্রুত গতিতে’ এবং সঠিক পথে চলে।

দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটি যে অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছে সে বিষয়ে নিজের দৃষ্টিভঙ্গি ব্যাখ্যা করতে গিয়ে শেহবাজ দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, বিগত ৭৫ বছরে পাকিস্তানের ক্ষমতায় থাকা সরকারগুলো অর্থনৈতিক সমস্যাগুলো নির্ধারণ বা সমাধান করতে পারেনি।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) নিজের সাম্প্রতিক সফরের কথা উল্লেখ করে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ অত্যন্ত সদয়ভাবে পাকিস্তানকে আরও ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। একই অনুষ্ঠানে বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ সৌদি আরবের আর্থিক সহায়তারও প্রশংসা করেন।

প্রধানমন্ত্রী বেসামরিক কর্মচারীদের তাদের সর্বোচ্চ সক্ষমতা দিয়ে দেশ ও জাতির সেবা করার আহ্বান জানান এবং আশা প্রকাশ করেন, বর্তমান চ্যালেঞ্জ থেকে তারা দেশকে বের করে আনতে সক্ষম।

সূত্র: ঢাকা পোস্ট
আইএ/ ১৬ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button