জাতীয়

আবারও ১/১১ এর মত পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চায় বিএনপি

ঢাকা, ১৪ জানুয়ারি – আবারও ১/১১ এর মত পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চায় জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে যৌথসভায় এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, বিএনপি ভেতরে ভেতরে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিলেও নির্বাচনে জিতবে এমন আশ্বস্ত হতে পারছে না। তাই তারা ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে চোরাই পথে ক্ষমতা দখলের চেষ্টা করছে। একটা ১/১১ হয়েছে, আরেকটা ১/১১ এর পূনরাবৃত্তি করে বেনিফিসিয়ারি হবে তারা। এই লক্ষ্যে তারা অশুভ খেলায় মেতে উঠেছে।

শনিবার প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন গণভবনে জাতীয় কমিটি, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সঙ্গে ১২টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত বৈঠক হয়, এরপরে বিকালে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে যৌথসভায় বসেন সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বৈঠকের শুরুতে সাংবাদিকদের সামনে তিনি বলেন, ইদানিং আমরা লক্ষ্য করছি হঠাৎ করে বাস পোড়ানো, যেটা ফরিদপুরে ঘটেছে, সেখানে পুলিশের উপর আক্রমণ করেছে, সেখানে সবাই এক বাক্যে বলেছে পুলিশ আক্রমণকারী নয়, তারা আক্রান্ত।

কাদের বলেন, তারা জানে শেখ হাসিনার উন্নয়নে দেশের মানুষ খুশি, আর বিএনপির প্রতি জনগণের কোনো আস্থা নেই। আগামী নির্বাচনেও জেতার সম্ভাবনা নেই, সেটা তারা জানে। তাই তারা দেশে একটি অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্ট করতে চয়। তাদের উদ্দেশ্য ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে শেখ হাসিনার সরকারকে হটাবে। দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে। এর মধ্য দিয়ে তারা সরকার পতনের ক্ষেত্র প্রস্তুত করবে।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশের আলোকে আমরা নিজেদের প্রস্তুত রাখবো। আমরা ক্ষমতায় রয়েছি তাই এই দেশের জনগণের জানমালের নিরাপত্তার বিষয়টি অবশ্যই আমাদের দেখতে হবে। আন্দোলনের নামে ভাংচুর অগ্নিসংযোগ করে তারা জনজীবনে দুর্ভোগ ডেকে আনবে, রাস্তা অবরোধ করে বিশৃঙ্খলা ডেকে আনবে এই অবস্থায় আমরা চুপ থাকতে পারি না।

তিনি বলেন, আমরা যাদের ওয়াদা দিয়ে জনগণের ভোট নিয়েছি তাদের কাছে আমাদের দায় রয়েছে।

কাদের বলেন, আন্দোলনের নামে সহিংসতা নাশকতা হলে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে, জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে হবে। সেজন্যই আমরা আজকে এই সভা ডেকেছি। তারা যত কথাই বলুক আমরা আমাদের অবস্থানে সতর্ক আছি।

নেতাকর্মীদের দিনভর পরিশ্রমের উদাহরণ দিতে কাদের বলেন, আজকে আমাদের দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে ১২টা থেকে সাড়ে চারটা পর্যন্ত আমাদের নেত্রী সভা করেছে। সভা শেষে আমরা এখানে যৌথ সভায় এসেছি। আমরা আরও সতর্ক থাকবো, আমাদের নেতাকর্মীদের আরও সুদৃঢ় করতে হবে। যে কোন ধরণের নাশকতা করে দেশকে অস্থিতিশীল পরাস্থিতি সৃষ্টির পায়তারা করতে চাইলে প্রতিরোধ করা হবে, প্রতিহত করা হবে।

যৌথ সভায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ডা. দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, নগর উত্তর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা আওয়ামী লীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ১৪ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button