দক্ষিণ এশিয়া

মমতার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা আছে

নয়াদিল্লি, ১৪ জানুয়ারি – পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভারতের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা আছে। এমনই মনে করেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। শনিবার সংবাদসংস্থা পিটিআইকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা জানিয়েছেন তিনি। তার মতে, আগামী লোকসভা ভোটে বিজেপিকে হারাতে গেলে দেশের আঞ্চলিক দলগুলোকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

সাক্ষাৎকারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন? এই প্রশ্নের জবাবে অমর্ত্য বলেন, এমন নয় যে তার এটা করার ক্ষমতা নেই। এটা খুব স্পষ্ট, তার সেই ক্ষমতা রয়েছে। কিন্তু অন্য দিকে, এটা এখনও প্রতিষ্ঠিত নয় যে, মমতা বিজেপির বিরুদ্ধে জনগণের হতাশার জায়গাগুলোকে এক ছাতার তলায় এনে ভারতে বিভেদের রাজনীতির অবসান ঘটাতে নেতৃত্ব দেবেন।

অমর্ত্য জানিয়েছেন, তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভারতের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যথেষ্ট যোগ্যতা আছে। কিন্তু দেখতে হবে, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী কী করে বিজেপির বিরুদ্ধে জন অসন্তোষকে কাজে লাগাতে পারেন, এমনটাই মনে করছেন অমর্ত্য।

অমর্ত্য সেন আরও বলেন, ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির জেতা ম্যাচ বলে মনে করেন না তিনি। বরং তিনি তাকিয়ে রয়েছেন দেশের একাধিক আঞ্চলিক দলের ফলের দিকে। তৃণমূলের মতো আঞ্চলিক দলগুলোর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে বলেই মনে করেন তিনি। নবতিপর অর্থনীতিবিদ ঘোষিত বিজেপি বিরোধী।

তিনি বলেন, আমার মনে হচ্ছে, একাধিক আঞ্চলিক দল আগামী দিনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে চলেছে। আমার মনে হয়, ডিএমকে একটি গুরুত্বপূর্ণ দল, তৃণমূলও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, সমাজবাদী পার্টির ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। কিন্তু আমি জানি না, এই মুহূর্তে কী অবস্থায় রয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর একাধিক বার উগ্র জাতীয়তাবাদের বিপদ সম্পর্কে সতর্ক করেছেন তিনি। এজন্য বিজেপির লাগাতার আক্রমণের মুখেও পড়তে হয়েছে অর্থনীতিতে নোবেলজয়ীকে। এই প্রেক্ষিতেই সাক্ষাৎকারে ফের জোর গলায় বিজেপিকে হারাতে আঞ্চলিক দলগুলোর গুরুত্বের কথা বললেন তিনি।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ১৪ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button