জাতীয়

দুই বছর পর ইজতেমা, তাবলীগ জামাতে বিভক্তি রয়েই গেল

আকবর হোসেন

ঢাকা, ১৩ জানুয়ারি – করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে দুই বছর বিরতির পর বিশ্ব ইজতেমা আবারো শুরু হলেও, তাবলীগ জামাতের মধ্যে বিভক্তি কাটেনি এবং সেটি দূর হবার কোন লক্ষণও দেখা যাচ্ছে না।

তাবলীগ জামাতের দুটি গ্রুপ আলাদাভাবে টঙ্গীর তুরাগ নদীর পাড়ে বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন করেছে, যার প্রথম পর্বটি শুরু হয়েছে শুক্রবার।

তেরই জানুয়ারি থেকে পনেরই জানুয়ারি পর্যন্ত প্রথম পর্বের ইজতেমার আয়োজন করেছে মাওলানা জুবায়ের আহমদের নেতৃত্বাধীন অংশ। আর ২০ থেকে ২২শে জানুয়ারি ইজতেমা আয়োজন করেছেন মাওলানা ওয়াসিফুল ইসলামের অংশ, যারা ভারতের মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্দলভীর অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

মাওলানা জুবায়ের আহমদের অংশটিকে প্রকাশ্যে সমর্থন দিয়ে মাওলানা সাদ-এর বিরোধিতায় লিপ্ত হয়েছে হেফাজতে ইসলামী।

মাওলানা সাদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অবস্থান নেয় হেফাজতে ইসলামের নেতৃত্বে কওমি মাদ্রাসা। মাওলানা সাদ যাতে বাংলাদেশে আসতে না পারেন সেজন্য হেফাজতে ইসলাম নানা তৎপরতা শুরু করে।

গত ১৭ই ডিসেম্বর হেফাজতে ইসলামের নেতারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করে কিছু দাবি তুলে ধরেন। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে, বিশ্ব ইজতেমার সময় মাওলানা সাদকে যাতে বাংলাদেশে আসতে দেয়া না নয়।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে দেয়া এক গোয়েন্দা রিপোর্টে বলা হয়েছে, হেফাজতে ইসলামের বিরোধিতার মুখে মাওলানা সাদ-এর অনুসারীরা যদি তাকে বাংলাদেশে আনার চেষ্টা করে, তাহলে পরিবেশ অস্থিতিশীল হয়ে উঠতে পারে।

মাওলানা সাদ-এর অনুসারীদের সাথে সম্পৃক্ত মোহাম্মদ সায়েম বলেন, তারা আশা করছেন আগামী বিশ থেকে বাইশে জানুয়ারি তাদের ইজতেমা পর্ব সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে।

“তাদের ইজতেমা আলাদা, আমাদের ইজতেমা আলাদা। আমাদের ইজতেমায় কে আসবে সেটা আমরা নির্ধারণ করবো। তারা কেন বলছে যে মাওলানা সাদ সাহেব আসতে পারবে না? কারণটা কী?” প্রশ্ন তোলেন মি. সায়েম।

সূত্র: বিবিসি
এম ইউ/১৩ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button