জাতীয়

চট্টগ্রামে মেট্রোরেল নির্মাণের সিদ্ধান্ত শীঘ্রই

চট্টগ্রাম, ১৩ জানুয়ারি – আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, চট্টগ্রামে মেট্রোরেলের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। নির্মাণের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আসবে শীঘ্রই। আগামী ৩১ জানুয়ারি চট্টগ্রাম এসে পরবর্তী করণীয় ঠিক করব।

শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় ওবায়দুল কাদের দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি, অর্থনৈতিক সংকট, ব্যাংকের রিজার্ভ, বঙ্গবন্ধু টানেল, বৈশ্বিক পরিস্থিতিসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ঢাকায় মেট্রোরেল কতটুকু আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে সেটা আপনারা দেখেছেন। চট্টগ্রামেও মেট্রোরেল হবে। চট্টগ্রামের নেতাদের নিয়েই এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ বা করণীয় জানানো হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চলতি বছরের ৪ জানুয়ারি জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (একনেক) সভায় ঢাকার পর চট্টগ্রামেও মেট্রোরেল নির্মাণের নির্দেশ দেন। এ নির্দেশ পাওয়ার পর চায়না রেলওয়ে কন্সট্রাকশন কোম্পানি (সিআরসিসি)-১৯ ও ডব্লিউআইইটিসি-জেভি সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ শুরু করে।

মন্ত্রী বলেন, দেশের জাতীয় অর্থনীতির প্রাণস্পন্দন চট্টগ্রাম। আর এখানেই কর্ণফুলীর তলদেশে নির্মিত হচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম টানেল- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল। টানেলটির নির্মাণকাজ ৯৫.৫০ শতাংশ শেষ। এখন চলছে প্রবেশ পথে স্ক্যানার বসানোর কাজ। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে ২৪ ফেব্রুয়ারি টানেলটি যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে। এপ্রিল-মে মাসের দিকে সর্ব সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে। এই টানেল চালু হলে চট্টগ্রাম চীনের সাংহাই শহরের মতো ওয়ান সিটি টু টাউনে রূপ নেবে।

মতবিনিময় সভায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ সালাম, সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক এবিএম ফখরুজ্জামান, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সভাপতি সালাহউদ্দিন মো. রেজা, সিনিয়র সহ-সভাপতি চৌধুরী ফরিদসহ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/১৩ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button