ইউরোপ

সোলেদারকে রক্ষার জন্য যে প্রতিশ্রুতি দিলেন জেলেনস্কি

কিয়েভ, ১৩ জানুয়ারি – প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, ইউক্রেনীয় বাহিনী পূর্বে বাখমুত এবং সোলেদারকে রক্ষা করে সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মধ্যে রাশিয়ান সেনাদের উপসাগরে রাখার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার এক ভিডিও বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন। খবর এএফপির।

কিয়েভ বলেছে, এর আগে তাদের সেনারা দেশটির পূর্বাঞ্চলের বিধ্বস্ত শিল্প শহরগুলোর নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখার জন্য লড়াই করছিল, যা রাশিয়ান ভাড়াটেরা এ সপ্তাহের শুরুর দিকে দখলে নিয়েছে বলে দাবি করেছে।

ক্রেমলিন প্রায় এক বছরের লড়াইয়ের পর বাখমুত এবং এর সঙ্গে সোলেদার দখল করাকে তাদের প্রাথমিক লক্ষ্য হিসেবে ধরে নিয়েছে। রাজধানী কিয়েভ দখলের মতো আরও উচ্চাভিলাষী লক্ষ্য ত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছে।

আমি জোর দিতে বলতে চাই যে, এ শহরগুলো রক্ষাকারী ইউনিটগুলোকে গোলাবারুদ এবং প্রয়োজনীয় সবকিছু সময়মতো এবং বাধা ছাড়াই সরবরাহ করা হবে- জেলেনস্কি সিনিয়র সামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পর এক বিবৃতিতে এ কথা বলা হয়।

প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, ইউক্রেনীয় বাহিনী পূর্বে বাখমুত এবং সোলেদারকে রক্ষা করে সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে রাশিয়ান সেনাদের উপসাগরে রাখার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত কিছু দিয়ে সজ্জিত করবে।

দোনেৎস্কে একজন রাশিয়া-প্রতিষ্ঠিত কর্মকর্তা আন্দ্রে বেয়ভস্কি বলেছেন, শহরের অভ্যন্তরে ইউক্রেন থেকে এখনো ‘ছোট প্রতিরোধের পকেট’ রয়েছে। তিনি দাবি করেছেন, রাশিয়ান-সমর্থিত সেনাদের প্রায় সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ রয়েছে।

সোলেদার এবং নিকটবর্তী বৃহত্তর শহর বাখমুতের জন্য লড়াইয়ে উভয়পক্ষই ব্যাপক ক্ষতি স্বীকার করেছে, যা ইউক্রেন থেকে দোনেৎস্ককে বিচ্ছিন্ন করে নেওয়ার জন্য রাশিয়ার লক্ষ্যের মূল চাবিকাঠি।

ক্রেমলিন বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের পূর্ব দোনেৎস্ক অঞ্চল দখল এবং অন্যান্য ফ্রন্টে কাজ করা রাশিয়ান বাহিনীর ‘বীরত্বপূর্ণ’ কাজের প্রশংসা করেছে।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/১৩ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button