জাতীয়

সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ-প্রতিযোগিতামূলক হবে

ঢাকা, ১২ জানুয়ারি – আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ এবং প্রতিযোগিতামূলক হবে বলে দলীয় সদস্যদেরকে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এই প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনে বিজয়ের জন্য দলের সংসদ সদস্যদের এখন থেকেই মানুষের কাছে গিয়ে ভোট চাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) রাতে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ নির্দেশ দেন।

সভা শেষে এ সভায় উপস্থিত আওয়ামী লীগের কয়েকজন সংসদ সদস্যের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা যায়।

জাতীয় সংসদ ভবনের নয়তলায় সরকার দলীয় সভাকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সংসদীয় দলের সভাপতি শেখ হাসিনা।

সূত্র জানায়, এ সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামী নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ এবং প্রতিযোগিতামূলক হবে। নির্বাচনে বিজয়ের জন্য এখন থেকেই ভালোভাবে কাজ করতে হবে। বিজয়ের জন্য সংসদ সদস্যদের সবাইকে নিজ নিজ এলাকায় মানুষের কাছে যেতে হবে। মানুষের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক রাখতে হবে। মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে আমাদের এই তিন মেয়াদের সরকার যেসব উন্নয়ন কাজ করেছে সে উন্নয়নগুলো তাদের কাছে সেগুলো তুলে ধরতে হবে।

সূত্র আরও সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা দলের সংসদ সদস্যদের সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, সংসদ সদস্যদেরও সবার তথ্যই আমার কাছে আছে। নির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়ার সময় এ বিষয়গুলোর ওপর গুরুত্ব দেওয়া হবে।

তিনি বলেছেন, আমার কাছে সার্ভে রিপোর্ট আছে। সার্ভে রিপোর্ট বিবেচনায় নিয়েই দলের প্রার্থী মনোনয়ন দেবো। জনগণ থেকে যারা বিচ্ছিন্ন, এলাকায় যায় না, মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক রাখে না, মনোনয়নের ক্ষেত্রে তাদের ব্যাপারে চিন্তা-ভাবনা করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। যারা দলীয় নির্দেশ অমান্য করে দলের বিরুদ্ধে কাজ করেছেন, যারা জনপ্রিয়তা হারিয়েছে তাদের মনোনয়ন দেওয়া হবে না। জনপ্রিয়দেরই মনোনয়ন দেওয়া হবে যাতে বিজয়ী হয়ে আসতে পারে। এ বিষয়গুলো চিন্তা করে এখন থেকে দলের জন্য কাজ করতে হবে।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের সফলতা ও উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরার পাশাপাশি বিরোধী দল বিএনপি-জামায়াতের অপকর্মগুলোও মানুষের কাছে তুলে ধরতে হবে। অতীতে তারা ক্ষমতায় থেকে যে দুর্নীতি করেছে, লুটপাট, সন্ত্রাস, হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে সেগুলো মানুষকে বলতে হবে। পাশপাশি বিরোধী দলের গিয়ে আন্দোলনের নামে তারা যে আগুন সন্ত্রাস করেছে, মানুষ খুন করেছে, জনগণের সম্পদ নষ্ট করেছে এগুলোও মানুষের কাছে গিয়ে বলতে হবে, মানুষকে মনে করিয়ে দিতে হবে।

সূত্র: বাংলানিউজ
আইএ/ ১২ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button