আইন-আদালত

সুপ্রিমকোর্ট লিগ্যাল এইডের নতুন চেয়ারম্যান বিচারপতি নাইমা হায়দার

ঢাকা, ১২ জানুয়ারি – সুপ্রিমকোর্ট লিগ্যাল এইডের নতুন চেয়ারম্যান হয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি নাইমা হায়দার।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী তাকে লিগ্যাল এইডের চেয়ারম্যান হিসেবে নিযুক্ত করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ সাইফুর রহমান।

এর আগে সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন। সম্প্রতি তিনি আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় তার স্থলে বিচারপতি নাঈমা হায়দারকে মনোনয়ন দেয়া হয়।

সরকারি খরচায় অসচ্ছল বিচারপ্রার্থীদের বিনামূল্যে আইনি সেবা দিতে ২০১৪ সালের ৮ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটির অফিসটি উদ্বোধন করেন তৎকালীন প্রধান বিচারপতি। এর আগেই জাতীয় আইনগত সহায়তা আইনের অধীনে সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটি গঠন করা হয়।

এ কমিটির প্রথম চেয়ারম্যান ছিলেন বিচারপতি মো. নিজামুল হক। ২০১৫ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে শপথ নেন বিচারপতি নিজামুল হক। এ কারণে তার স্থলে ১৮ ফেব্রুয়ারি নতুন চেয়ারম্যান হন বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিম। গত বছরের ৯ জানুয়ারি আপিল বিভাগে তিনি নিয়োগ পান। তখন এই পদে ২০২২ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিমকে মনোনীত করা হয়। গত বছর ৮ ডিসেম্বর আপিল বিভাগে নিয়োগ পান বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম। এরপর বিচারপতি নাইমা হায়দারকে এই পদে মনোনীত করলেন প্রধান বিচারপতি।

বিচারপতি নাইমা হায়দার সাবেক প্রধান বিচারপতি বদরুল হায়দার চৌধুরীর মেয়ে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে পড়াশোনা করেন। এছাড়াও কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, সাউদার্ন বিশ্ববিদ্যালয়, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়, বার্কলে বিশ্ববিদ্যালয় ও লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন।

বিচারপতি নাইমা হায়দার ১৯৮৯ সালে জেলা আদালতে আইন পেশায় যুক্ত হন। ১৯৯৩ সালে হাইকোর্টের আইনজীবী ও ২০০৪ সালে আপিল বিভাগের আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন।

২০০৯ সালের ৬ জুন তিনি হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিযুক্ত হন। আর ২০১১ সালের ৬ জুন হাইকোর্টের স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। অসংখ্য আলোচিত রায় দিয়ে সুনাম কুড়িয়েছেন বিচারপতি নাইমা হায়দার।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ১২ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button