সংগীত

কিংবদন্তি গিটারিস্ট জেফ বেক আর নেই

লন্ডন, ১২ জানুয়ারি – কিংবদন্তি ব্রিটিশ গিটারিস্ট জেফ বেক আর নেই। গত মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) মারা গেছেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। এ খবর জানানো হয়েছে তার অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে।

জেফ বেকের মৃত্যুর খবর প্রকাশ করে তার ওয়েবসাইট থেকে জানানো হয়, তার পরিবারের পক্ষ থেকে গভীর শোক ও দুঃখভারাক্রান্ত হৃদয়ে বলতে হচ্ছে, জেফ বেক মারা গেছেন।

গিটারিস্টদের গিটারিস্ট বলা হয় জেফ বেককে। রোলিং স্টোন সাময়িকী সর্বকালের সেরা একশ গিটারিস্টের তালিকা করেছিল। এতে পঞ্চম স্থানে ছিলেন জেফ।

১৯৪৪ সালের ২৪ জুন লন্ডনে জন্ম হয় জিওফ্রে আর্নল্ড বেক। তবে তিনি জেফ বেক নামে পরিচিত। মাত্র ছয় বছর বয়সে রেডিওতে শুনে গিটারের প্রতি তার ভালোবাসা জন্মে। গিটারবাদক হিসেবে জেফের শুরুটা হয়েছিল ইয়ারবার্ডস ব্যান্ডের সঙ্গে। পরে ব্যান্ডটির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে নিজেই একটি ব্যান্ড গঠন করেন তিনি।

নিজের গড়া জেফ বেক গ্রুপ ব্যান্ডে জেফের সঙ্গে ছিলেন রড স্টুয়ার্ট। সহকর্মীর মৃত্যুর সংবাদ শুনে তিনি লিখেছেন, ‘জেফ বেক ছিল অন্য গ্রহের বাসিন্দা। সে ষাটের দশকের শেষের দিকে আমাকে ও রুনি উডকে তার দলে নিল। আমরা যুক্তরাষ্ট্র সফরে গেলাম, এরপর আর পেছন ফিরে দেখতে হয়নি।’

জেফ বেকের খ্যাতি কেবল তার পারফরম্যান্সেই সীমাবদ্ধ ছিল না বরং ষাটের দশকে হেভি মেটাল, জ্যাজ-রক এমনকি পাঙ্কের উত্থানেও তার প্রেরণা ছিল। জেফ বেকের কাছে গিটার যেন ছিল আজ্ঞাবহ এক যন্ত্রের মতোই। তিনি প্রচলিত নিয়মনীতির তোয়াক্কা করতেন না খুব একটা। গিটার হাতে পেলে হারিয়ে যেতেন অন্য এক ভুবনে।

২০০৯ সালে দ্বিতীয়বারের মতো রক অ্যান্ড রোলের হল অব ফেমে জায়গা পাওয়ার সময় এক সাক্ষাৎকারে জেফ বেক বলেছিলেন, ‘আমি সেভাবেই বাজাই, কারণ এটাই আমাকে সম্ভাব্য সবচেয়ে কষ্টের শব্দ বের করে নিয়ে আসতে সাহায্য করে। এটাই তো ব্যাপার, তাই না? আমি নিয়মনীতির পরোয়া করি না।’

বিখ্যাত এই গিটারিস্টের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে তার সহকর্মী ও শুভানুধ্যায়ীদের মাঝে। জনি ডেপ, অ্যালিস কুপার, জো পেরি, এরিক ক্লাপটন, টমি হেনরিকসেনসহ অনেকেই করেছেন শোক প্রকাশ।

বেস্ট রক ইনস্ট্রুমেন্টাল পারফর্মেন্সের জন্য ছয়বার গ্র্যামি জিতেছিলেন জেফ বেক। এছাড়া বেস্ট পপ ইনস্ট্রুমেন্টাল পারফর্মেন্সের জন্য পেয়েছেন একবার। ২০১৪ সালে তিনি ব্রিটিশ অ্যাকাডেমি থেকে সম্মানজনক ‘আইভর নভেলো অ্যাওয়ার্ড’ অর্জন করেন। রক অ্যান্ড রোল হল অব ফেমেও তিনি দুইবার জায়গা করে নিয়েছিলেন।

আইএ/ ১২ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button