জানা-অজানা

বিশ্বে প্রতি সাড়ে চার সেকেন্ডে মারা যায় একটি শিশু

বিশ্বের প্রায় ৫০ লাখ শিশু তাদের পাঁচ বছর পূর্ণ করার আগেই মৃত্যুবরণ করেছে ২০২১ সালে। সেই হিসেবে সাড়ে চার সেকেন্ডে এক শিশুর মৃত্যু হয়। এর মধ্যে প্রায় অর্ধেক (৪৭%) শিশু মারা গেছে বয়স এক মাস হওয়ার আগেই। অথচ উপযুক্ত চিকিৎসা দিয়ে এটা অনেকাংশে কমানো যেত। খবর গার্ডিয়ানের।

জাতিসংঘের চাইল্ড মরটালিটি এস্টিমেশন বুধবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়। এতে বলা হয়, ২০২১ সালে ১৯ লাখ শিশু মৃত অবস্থায় জন্মগ্রহণ করেছে। এতে বলা হয়, ২০১৭ সালের পর থেকে নবজাতক মৃত্যুর হার খুব একটা কমেনি। গত ১২ বছরে এ ক্ষেত্রে অগ্রগতি মন্থর হয়ে পড়েছে। জন্মের পর প্রথম মাসে ২৫ লাখ নবজাতক মারা যায় ২০১৭ সালে। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ২৩ লাখ।
ইউনিসেফের প্ল্যানিং অ্যান্ড মনিটরিং বিভাগের ডেটা অ্যানালিটিক্স ডিরেক্টর বিদ্যা গণেশ বলেছেন, প্রতিদিন অনেক অভিভাবক তাঁদের সন্তানদের হারানোর মানসিক আঘাতের সম্মুখীন হচ্ছেন। কখনও কখনও প্রথম নিঃশ্বাসের আগেই মারা যাচ্ছে শিশুরা। এ ধরনের ব্যাপক ও প্রতিরোধযোগ্য ট্র্যাজেডি কখনই অনিবার্য হিসেবে গ্রহণ করা উচিত নয়। প্রতিটি নারী ও শিশুর জন্য প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে সুদৃঢ় রাজনৈতিক ইচ্ছা এবং লক্ষ্যভিত্তিক বিনিয়োগের মাধ্যমে অগ্রগতি সম্ভব।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি শতাব্দীর শুরু থেকে বিশ্বব্যাপী পাঁচ বছরের কম বয়সী মৃত্যুর হার ৫০ শতাংশ কমেছে। মৃত শিশু জন্মের হার কমেছে ৩৫ শতাংশ। ইউনিসেফ জানায়, স্বাস্থ্য পরিষেবার উন্নতির জন্য দ্রুত পদক্ষেপ না নিলে ২০৩০ সালে আগে আরও প্রায় ৫ কোটি ৯০ লাখ শিশু এবং তরুণ মারা যাবে এবং প্রায় ১ কোটি ৬০ লাখ মৃত শিশু জন্ম নিতে পারে।

এম ইউ/১২ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button