পশ্চিমবঙ্গ

প্রাথমিকে নিয়োগ: সাড়ে ১৯ কোটি টাকা তুলেছেন যুব তৃণমূল নেতা, দাবি মানিক-ঘনিষ্ঠ তাপসের

কলকাতা, ১২ জানুয়ারি – বহু ছাত্রছাত্রীর থেকে প্রায় সাড়ে ১৯ কোটি টাকা তুলেছেন হুগলির যুব তৃণমূল নেতা। সিবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদের পর এমনই দাবি করলেন প্রাথমিকে ‘নিয়োগ-দুর্নীতি’ মামলায় ধৃত প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের অপসারিত সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের ‘ঘনিষ্ঠ’ তাপস মণ্ডল। বুধবার বেলার দিকে নিজাম প্যালেসে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার দফতরে যান তিনি। সন্ধ্যায় সেখান থেকে বেরোনোর সময় তাপস দাবি করেন, তৃণমূল নেতা যে ১৯ কোটি ৪৪ লক্ষ ৫০ টাকা তুলেছিলেন, তার কিছু তথ্যপ্রমাণ তিনি তদন্তকারীদের হাতে তুলে দিয়েছেন।

সিবিআই সূত্রে খবর, বুধবার তাপস এবং ওই তৃণমূল নেতাকে মুখোমুখি বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রায় ৩ ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদের পর বাইরে বেরিয়ে তাপস দাবি করেন, শাসকদলের ওই যুব নেতার কথা আগেই সিবিআইকে বলেছিলেন তিনি। ওই নেতাকে যাতে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়, তার আর্জিও জানিয়েছিলেন। মানিক ঘনিষ্ঠের কথায়, ‘‘বহু ছাত্রছাত্রীর থেকে জানতে পেরেছি, ওঁরা তৃণমূল নেতাকে টাকা দিয়েছেন। সেটার একটি হিসাব আমি সিবিআইকে দিয়েছিলাম। আজ কিছু নথি দিয়ে এলাম। সব মিলিয়ে ১৯ কোটি ৪৪ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।’’ যদিও ওই টাকা তৃণমূল নেতা কোথায় পাঠিয়েছেন, তা তিনি জানেন না বলেই তাপস দাবি করেছেন। এ ব্যাপারে অবশ্য ওই নেতার কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

প্রসঙ্গত, গত ৩ জানুয়ারিও তাপসকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল সিবিআই। তার আগে অবশ্য তাঁকে একাধিক বার এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। ইডি-র চার্জশিটে তাপস অভিযুক্ত। প্রথম থেকেই তাঁর দাবি, ডিইএলএড কোর্সে পড়ুয়াদের কাছ থেকে অফলাইনে ভর্তির জন্য প্রায় ২১ কোটি টাকা নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে মানিককেও জড়িয়েছিলেন তিনি। বুধবার সেই তাপস বলেন, ‘‘ইডির কাছে যা বলেছি, সিবিআইকেও সেটাই বলেছি।’’

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা অনলাইন
আইএ/ ১২ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button