জাতীয়

যুক্তরাষ্ট্রে মাত্র একটি বাড়ি আছে, তা–ও স্ত্রীর কেনা

ঢাকা, ১০ জানুয়ারি – ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তাকসিম এ খান দাবি করেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে তার ১৪টি বাড়ি থাকার যে তথ্য সংবাদপত্রে প্রকাশ করা হয়েছে, তার কোনো সত্যতা নেই। তিনি বলেন, ‘যে ১৪টি বাড়ির কথা বলা হয়েছে, তার মধ্যে পাঁচটি বাড়িতে আমার পরিবার সেখানে বিভিন্ন সময় ভাড়া থেকেছে। শুধু একটি বাড়ি রয়েছে আমার স্ত্রীর কেনা। এর বাইরে কোনো বাড়ি নেই।’

উচ্চ আদালত তদন্তের আদেশ দেওয়ার পরদিন মঙ্গলবার কারওয়ান বাজার ওয়াসা ভবনে কিছু সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ দাবি করেন তিনি।

‘ওয়াসার তাকসিমের যুক্তরাষ্ট্রে ১৪ বাড়ি!’ শিরোনামে সোমবার প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) জমা পড়া অভিযোগের ভিত্তিতে ওই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। দুদকের একজন আইনজীবী প্রতিবেদনটি গতকাল হাইকোর্টের নজরে আনলে আদালত বলেছেন, এ বিষয়ে দুদক যাচাই–বাছাই করতে পারে।

খবরটি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে আজ কয়েকটি গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে নিজের অবস্থান তুলে ধরেন তাকসিম এ খান। তবে সব গণমাধ্যমের কর্মীদের ওয়াসা ভবনে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। অনেক সাংবাদিক ওয়াসা ভবনের ফটক থেকে ফিরে যান।

ওয়াসা এমডি সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রে ১৪টি বাড়ি কেনার বিষয়ে যে প্রতিবেদন এসেছে, তা ডাহা মিথ্যা। প্রতিবেদনে শুধু একটি বিষয় ঠিক লিখেছে, সেটা হচ্ছে আমার যুক্তরাষ্ট্রের সিটিজেনশিপ। আমার স্ত্রীসহ আমার পরিবার যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা। আমাকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে এনে ওয়াসার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল।’

তাকসিম এ খান বলেন, তার স্ত্রী-সন্তান যুক্তরাষ্ট্রে ওয়েল স্ট্যাবলিশড (ভালোভাবে প্রতিষ্ঠিত), তাই সেখানে একটি বাড়ি কেনায় খুব অসুবিধার কিছু নেই। তিনি বলেন, ‘আমার স্ত্রীর নামেই ওই একটা বাড়ি আছে। সেটাকেও বাড়ি বলা যাবে না, এটা একটা অ্যাপার্টমেন্ট।’

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/১০ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button