দক্ষিণ এশিয়া

গোয়ায় ফেরা বিমানে বোমাতঙ্ক

নয়াদিল্লি, ১০ জানুয়ারি – হুট করেই পাইলটের কাছে মেইলে হুমকি আসে। মুহূর্তেই মস্কো থেকে ভারতের গোয়ামুখী বিমানে ছড়িয়ে পড়ে বোমাতঙ্ক। এমন ঘটনার জেরে গতকাল সোমবার গভীর রাতে গুজরাটের জামনগর বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করা হয় ২৪০ জনের বেশি আরোহীসহ বিমানটিকে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, অবতরণের পর তন্নতন্ন করে তল্লাশির পর অবশ্য কোনো সন্দেহজনক বস্তু মেলেনি। সকল আরোহী নিরাপদেই আছেন। তবে এতে আতঙ্কিত যাত্রীরা। মঙ্গলবার বেলা ১১টা নাগাদ ফের বিমানটিকে গন্তব্যে রওনা করানোর কথা ছিল।

সোমবার রাতের দিকে প্রায় আড়াইশো যাত্রী নিয়ে মস্কো থেকে গোয়ায় ফিরছিল একটি চার্টার্ড বিমান। ছিলেন ২৩৬ জন যাত্রী ও ৮ জন কেবিন ক্রু। আচমকাই গোয়ার এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলে আন্তর্জাতিক বিমানে বোমা রয়েছে বলে হুমকি মেইল পাঠানো হয়। তাতেই ত্রস্ত হয়ে পড়েন সকলে।

 

গুজরাটের জামনগর বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করানো হয়। প্রত্যেক যাত্রীকে নামিয়ে তাদের জিনিসপত্র তন্নতন্ন করে পরীক্ষা করেন নিরাপত্তারক্ষীরা। নামে এনএসজিও। বিমানটিও ভালোভাবে পরীক্ষা করা হয়। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ তল্লাশির পরও কিছুই মেলেনি বলে খবর নিশ্চিত করে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

জামনগর বিমানবন্দরের ডিরেক্টর জানিয়েছেন, আমরা খুব ভালোভাবে ব্যাগ এবং বিমানের লাগেজ বক্স পরীক্ষা করেছি। এত যাত্রী, এত বড় বিমান, তাই অনেকটা সময় লেগেছে। অনেক নিয়ম মেনে তবেই আমরা বিমানটিকে ফের রওনা করাতে পারব।

জানা যায়, সকালের দিকে পরীক্ষার কাজ শেষ হলেও গোয়াগামী বিমানটিকে ছাড়া হয়নি। গুজরাটের ডিএসপি ভাস্কো সেলিম শেখ জানিয়েছেন, “মস্কো থেকে গোয়ায় ফেরা বিমানটিতে বোমাতঙ্কের খবর পেয়ে দূতাবাসও আমাদের সতর্ক করেছিল। সেই কারণেই বিমানটির জরুরি অবতরণ করতে হয়েছে। যদিও সমস্ত খুঁটিনাটি পরীক্ষা করে আমরা রুশ দূতাবাসকে আশ্বস্ত করেছি।”

সূত্র: আমাদের সময়
আইএ/ ১০ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button