জাতীয়

এবার দেবর-ভাবি একসঙ্গে বললেন, জাপায় বিভক্তির প্রশ্নই ওঠে না

ঢাকা, ০৯ জানুয়ারি – জাতীয় পার্টিতে (জাপা) বিভক্তির প্রশ্নই ওঠে না বলে মন্তব্য করেছেন দলটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ ও চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের। তাঁরা জানান, জাতীয় পার্টিকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে তাঁরা বদ্ধপরিকর।

আজ সোমবার পার্টির অফিসিয়াল প্যাডে লিখিত এক বিবৃতিতে তাঁরা এ কথা জানান।

এতে বলা হয়, কিছুদিন ধরে গণমাধ্যমে জাতীয় পার্টির বিভক্তি সম্পর্কিত কিছু খবর প্রকাশিত হয়েছে। দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলতে চাই, আমরা দুজনই পার্টিকে একটি শক্তিশালী বিরোধী দল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই।

তাঁরা বলেন, সংবিধান অনুযায়ী অনুষ্ঠিত আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টি অংশগ্রহণ করবে। ৩০০ আসনেই প্রার্থী ঘোষণার জন্য তাঁরা পার্টিকে সুসংগঠিত করার প্রত্যয় ঘোষণা করেন।

বিবৃতিতে পার্টিকে আরও শক্তিশালী করতে সর্বস্তরের নেতাকর্মীদেরকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

রওশন এরশাদ ও জি এম কাদের সম্পর্কে দেবর-ভাবি। জাপার প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের জীবদ্দশা থেকেই তাদের বিরোধ চলছে বলে বিভিন্ন সময় সংবাদে উঠে এসেছে। এরশাদের মৃত্যুর পর বিরোধীদলীয় নেতার পদ দিয়ে তা প্রকাশ্যে আসে। পরে দুই পক্ষের সমঝোতায় জাপার চেয়ারম্যান পদে জিএম কাদেরকে মেনে নেন রওশন। রওশনকেও বিরোধীদলীয় নেতার পদে মেনে জিএম কাদের। তিন বছর ধরে চলে আসা এই স্তিতিবস্থা গত আগস্টে ভাঙে। জিএম কাদের বিএনপির সুরে সরকারের সমালোচনা করছেন- এমন কারণ দেখিয়ে তাঁকে নেতৃত্ব থেকে সরাতে জাপার কাউন্সিল ডাকেন রওশন। এর প্রতিক্রিয়ায় রওশনকে বিরোধীদলীয় নেতার পদ থেকে সরাতে তৎপর হন জিএম কাদের।

জাপার ২৬ এমপির ২৪ জনের সমর্থন নিয়ে স্পিকারকে গত ১ সেপ্টেম্বর চিঠি দেন জি এম কাদের। তবে স্পিকারের স্বীকৃতি পাননি তিনি। উল্টো রওশনপন্থিদের মামলায় দলীয় চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনে আদালতের নিষেধাজ্ঞায় পড়ে গত মাস রাজনীতি থেকে দূরে থাকতে হয় জি এম কাদেরকে।

দীর্ঘ পাঁচ মাস থাইল্যান্ডে চিকিৎসা শেষে গত ২৭ নভেম্বর দেশে ফেরেন রশন এরশাদ। দেশে ফিরে ফিরে রওশন জানিয়েছিলেন, দলে ঐক্য চান। জি এম কাদেরের সঙ্গেও আলোচনায় বসবেন। ২৯ নভেম্বর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার সঙ্গে দেখা করতে হোটেলে যান জি এম কাদের।

রওশন দেশে ফেরার আগে তাঁর অনুসারীদের ঘোষণা ছিল, রংপুরে জাপা চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের প্রার্থীর বিরুদ্ধে পাল্টা প্রার্থী দেবেন রওশন। কিন্তু সোমবার রাতে জাপার প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাকে ডেকে সমর্থন জানান রওশন এরশাদ। জাপা সূত্রের ভাষ্য, দেবর-ভাবির ‘ঐক্যমতের’ প্রার্থী ছিল বিরোধ অবসানের প্রথম ধাপ।

সূত্র: সমকাল
আইএ/ ০৯ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button