কক্সবাজার

উখিয়ায় ছুরিকাঘাতে রোহিঙ্গা মাঝি নিহত

কক্সবাজার, ০৮ জানুয়ারি – কক্সবাজারের উখিয়া ক্যাম্প-১৫ এর ‘এ’ ব্লকে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে রশিদ আহমদ (৩৬) নামে এক রোহিঙ্গা হেড মাঝি নিহত হয়েছেন।

রশিদ আহমদ উখিয়ার পালংখালীর ক্যাম্প-১৫, জামতলীর ব্লক- এ/৪, শেড নম্বর-৩৩২ এর বাসিন্দা মৃত আব্দুল হাকিমের ছেলে। তার- এফসিএন-২৩০১৮১ এবং তিনি ব্লক হেড মাঝির দায়িত্ব পালন করছিলেন।

শনিবার (৭ জানুয়ারি) দিনগত রাত ৮টার দিকে ‌‘এ’ ব্লকে দ্বিতীয় স্ত্রীর ঘরে তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়। বিষয়টি করেছেন ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি ফারুক আহমেদ।

এএসপি ফারুক আহমেদ জানান, রাতে ব্লক এ/৫ এ অবস্থিত তার দ্বিতীয় স্ত্রীর ঘরে অবস্থান করছিলেন রশিদ। এসময় মুখে কাপড় বাঁধা তিনজন দুষ্কৃতিকারী সেই ঘরে প্রবেশ করে রশিদকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। ছুরিকাঘাতে ভিকটিমের বুকের ডান পাশে, পেটে, তল পেটে, ডান কানের লতিতে এবং বাম হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি কেটে গিয়ে জখম হয়। ভিকটিমের স্ত্রী ও প্রতিবেশীদের চিৎকারে ক্যাম্পের ভলান্টিয়াররা ভিকটিমকে উদ্ধার করে ক্যাম্প-১৫ এর এমএসএফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে— ব্যক্তিগত শত্রুতার জেরে এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হতে পারে। ঘটনার রহস্য উদঘাটন ও জড়িতদের গ্রেফতারে চেষ্টা অব্যাহত আছে। এরই মধ্যে সুরতহাল ও ময়ানাতদন্তের নিমিত্ত মরদেহ উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন।

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, জামতলী এপিবিএন ক্যাম্প উখিয়া থানায় সংবাদ দিলে রাত্রিকালীন ডিউটিতে থাকা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) ওলিউর রহমান ফোর্স নিয়ে এমএসএফ হাসপাতালে নিয়ে মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করেন। মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয় করতে মরদেহ কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ক্যাম্প ও আশপাশের আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

সূত্র: জাগো নিউজ
আইএ/ ০৮ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button