দক্ষিণ এশিয়া

তালেবানের অভিযোগ: প্রিন্স হ্যারি নিরীহ আফগানদের হত্যাকারী

কাবুল, ০৭ জানুয়ারি – ডিউক অব সাসেক্স হেনরি চার্লস এলবার্ট ডেভিড (প্রিন্স হ্যারি) আগামী সপ্তাহে ‘স্পেয়ার’ নামে নিজের আত্মজীবনী প্রকাশ করতে যাচ্ছেন। কিন্তু তার আগেই বইটির কিছু তথ্য ফাঁস হয়েছে।

বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের মধ্যে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোর শিরোনামে ঠাঁই পেয়েছে তার ২৫ তালেবান হত্যার বিষয়টি।
২০০৭-২০০৮ সালে আফগানিস্তানে ফরোয়ার্ড এয়ার কন্ট্রোলার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন প্রিন্স হ্যারি। ২০১২-১৩ সালে তিনি আক্রমণকারী হেলিকপ্টার ওড়ান। পাইলট জীবনের ছয়টি মিশনে ২৫ জন তালেবানের হত্যাকাণ্ড হয় তার হাতে। কিন্তু এই কৃতকর্মের জন্য তিনি লজ্জিত নন; নন গর্বিতও।

হ্যারির স্বীকারোক্তিতে খুশি নয় তালেবান প্রশাসন। তাদের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আনাছ হাক্কানির দাবি, সে সময় বেসামরিক ও সাধারণ মানুষকে লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছিল।

শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) কাতারের সংবাদমাধ্যম আল জাজিরাকে দেওয়া সাক্ষাতকারে হাক্কানি বলেন, প্রিন্স হ্যারি যেই দিনগুলোয় ২৫ মুজাহেদিনকে হত্যার কথা উল্লেখ করেছেন, সেসময় হেলমান্দে আমাদের কেউ হতাহত হয়নি। আমি পর্যবেক্ষণ করেছি, এবং এটি স্পষ্ট তখন বেসামরিক ও সাধারণ মানুষকে লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছিল। তার বইয়ে প্রমাণিত, আফগানিস্তানে পশ্চিমা সামরিক উপস্থিতির ২০ বছরে অনেক যুদ্ধাপরাধ সংগঠিত হয়েছে। এ ঘটনা তাদের দ্বারা সংগঠিত অপরাধের পুরো চিত্র নয়।

প্রিন্স হ্যারির দিকে আঙুল তুলে তিনি আরও বলেন, আপনার কথা সত্য। কেননা, আপনি, আপনাদের সেনা সমর ও রাজনৈতিক নেতাদের কাছে আমাদের নিরীহ জনগণ ছিল দাবার গুটি। আপনি এ খেলায় পরাজিত।

হাক্কানি এ কথা বলেছেন, কারণ আফগানিস্তানে তালেবান হত্যার ঘটনাটিকে হ্যারি ‘দাবার বোর্ড থেকে গুটি সরিয়ে দেওয়া’র সঙ্গে তুলনা করেছেন।

সূত্র: বাংলানিউজ
এম ইউ/০৭ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button