জাতীয়

বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ধাক্কা সামাল দিতে পারবো

ঢাকা, ০৭ জানুয়ারি – বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ধাক্কা বাংলাদেশেও লেগেছে। তুলনামূলক ছোট অর্থনীতির দেশ হিসেবে বৈশ্বিক বিরূপ পরিস্থিতি মোকাবিলা করে টিকা থাকার চেষ্টা করে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আশা করি আমরা বড় ধরনের ক্ষতি ছাড়াই পরিস্থিতি সামাল দিতে পারবো বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ‘ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তথ্য ভিত্তিক গ্রন্থ ব্যাংকিং অ্যালমানাক’ এর প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিব বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথিব বক্তব্যে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিয়ম-নীতি তৈরির কাজটি জবাবদিহিতার আওতায় আনা দরকার। দেশের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন তথ্য নিয়ে যে দ্বিধা ও বিঘ্ন সৃষ্টি হয়েছে তা নিরসনে ব্যাংকিং অ্যালমানাক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

দেশের রিয়েল (প্রকৃত) অর্থনীতির জন্য প্রকৃত তথ্য খুব প্রয়োজন উল্লেখ্য করে তিনি বলেন, বাজারে অনেক তথ্যই পাওয়া যায়, কিন্তু তথ্যের দ্বিধা ও বিঘ্ন দূর করতে প্রকৃত তথ্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাংকিং অ্যালমানাক সেই কাজটিই করছে।

হোসেন জিল্লুর রহমান আরও বলেন, অর্থনীতি নিয়ে বক্তব্যে দেওয়ার সময় সঠিক চিত্র উঠে আসছে না। এজন্য সব আলোচনার আগে প্রকৃত শব্দটি যোগ করার প্রয়োজন। ব্যাংকিংয়ের কথা বলি, প্রবৃদ্ধির কথা বলি, দারিদ্র্যের কথা বলি- প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে এখন প্রকৃত শব্দটা জরুরি হয়ে পড়েছে।

তিনি ফুটপাতে ছিন্নমূল মানুষের চিত্র তুলে ধরে বলেন, এই চিত্র আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছে দাদ্র্যির সংখ্যা বেড়েছে, প্রকৃত অবস্থা কী। এখানে অর্থনৈকি অনেক বিষয় চলে আসে। এছাড়া ব্যাংকের আমানতে ও ঋণ বিতরণে ৯ ও ৬ শতাংশ সুদ হার নিয়ে যা হচ্ছে তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ও ব্যাংকিং অ্যালমানাক গ্রন্থের এডিটোরিয়াল বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. সালেহউদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি)-এর সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আমিন, বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমানুল্লাহ, বিএলএফসি (বাংলাদেশ লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স কোম্পানিজ অ্যাসোসিয়েশন)-এর সাবেক চেয়ারম্যান মো. খলিলুর রহমান, ব্যাংকিং আ্যালমানাকের নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ জিয়াউদ্দিন আহমেদ এবং ব্যাংকিং অ্যালমানাকের প্রকল্প পরিচালক আবদার রহমান।

ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ আর্থিক খাত নিয়ে গৃহীত সব কর্মকাণ্ড প্রকাশ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, সবকিছু প্রকাশ্যে আনলে কিছুটা আলোচনা হলেও তার বিপদ কেটে যাবে। আর গোপন রাখলে তো আরও সমস্যা বাড়বে।

অর্থনীতি নিয়ে যত কাজ হচ্ছে, তার চেয়ে বেশি কথা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ব্যাংকিং খাতে সুশাসনের যা কিছু করণীয় তা দ্রুত দৃশ্যমান করা ও সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া প্রয়োজন। রাজনৈতিক নেতাদের মতো দেখছি, দেখবো- এ রকম চলবে না। বরং বিশেষ ক্ষমতা ব্যবহার করে বলতে হবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি, নেবো।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/০৭ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button