এশিয়া

৩৬ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করলেন পুতিন

মস্কো, ০৫ জানুয়ারি – ইউক্রেনে ৩৬ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ইউক্রেনে যুদ্ধরত রুশ বাহিনীর উদ্দেশ্যে বৃহস্পতিবার এক লিখিত আদেশে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট বলেছেন, আগামী শুক্র ও শনিবার (৬ ও ৭ জানুয়ারি) যেন রুশ সেনারা যুদ্ধ থেকে বিরত থাকেন।

সেই সঙ্গে ইউক্রেনকেও যুদ্ধবিরতি পালনের আহ্বান জানিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট।

বিশ্বজুড়ে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে ৩টি ধারা রয়েছে— রোমান ক্যাথলিক, প্রোটেস্টান্ট এবং অর্থোডক্স। রাশিয়ায় অর্থোডক্সপন্থী খ্রিস্টানরা সংখ্যাগরিষ্ঠ। ইউক্রেনেও বিপুলসংখ্যক অর্থোডক্সপন্থী আছেন।

রোমান ক্যাথলিকদের শীর্ষ ধর্মগুরুর পদবি ‘পোপ’, আর রাশিয়াসহ বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা অর্থোডক্সপন্থীদের শীর্ষ ধর্মগুরুর পদবি ‘প্যাট্রিয়ার্ক’। রোমান ক্যাথলিক ও প্রোটেস্টান্টপন্থীরা ২৫ ডিসেম্বর তাদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বড়দিন পালন করলেও অর্থোডক্সপন্থীরা তাদের বড়দিন পালন করেন ৬ ও ৭ জানুয়ারি।

বর্তমানে অর্থডক্সপন্থীদের প্রধান ধর্মগুরু হলেন প্যাট্রিয়ার্ক কিরিল অব মস্কো; একই সঙ্গে রাশিয়ার সব অর্থোডক্স গির্জার শীর্ষ নির্বাহীও তিনি। বৃহস্পতিবার এক লিখিত বার্তায় তিনি অর্থোডক্স বড়দিন উপলক্ষে রাশিয়া ও ইউক্রেনকে ৬ ও ৭ জানুয়ারি যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানান।

প্যাট্রিয়ার্ক এই আহ্বান জানানোর পর অল্প সময়ের মধ্যে তাতে সাড়া দিয়ে যুদ্ধবিরতির ঘোষণা দেন পুতিন। লিখিত আদেশে তিনি বলেন, ‘মহামান্য প্যাট্রিয়ার্ক কিরিলের আহ্বানকে সর্বোচ্চ সম্মান প্রদর্শন করে আমি রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিচ্ছি— বড়দিন উপলক্ষে ৬ জানুয়ারি রাত ১২ টা থেকে ৭ জানুয়ারি রাত ২৪টা (৮ জানুয়ারি রাত ১২টা) পর্যন্ত যেন ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতি মেনে চলা হয়।’

‘(ইউক্রেনের) যেসব এলাকায় এখন যুদ্ধ চলছে— সেসব স্থানে বিপুলসংখ্যক অর্থোডক্স খ্রিস্টান বসবাস করেন। আমি ইউক্রেনের প্রতিও ৬ এবং ৭ তারিখ যুদ্ধবিরতি পালনের এবং জনগণকে বড়দিন উৎসব পালনে যাবতীয় সহায়তা প্রদানের আহ্বান জানাচ্ছি।’

সূত্র: যুগান্তর
আইএ/ ০৫ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button