ক্রিকেট

সাকিবের বিস্ফোরক মন্তব্যের প্রসঙ্গে যা বললেন বিসিবির সিইও

ঢাকা, ০৫ জানুয়ারি – ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট বলতে এক সময় আইপিএলের পর বিপিএলকেই চিনত গোটা পৃথিবীর মানুষ। তবে শুরুর দিকের সেই মান পরে আর ধরে রাখতে বিসিবি তথা বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিল। যার ফলশ্রুতিতে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশের ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগ যেন হাস্যরসে পরিণত হয়েছে।

তাই বিপিএল নিয়ে বাংলাদেশি সমর্থকদের মতো টাইগার ক্রিকেটের পোস্টার বয় সাকিব আল হাসানও বেশ মর্মাহত। এজন্য বুধবার দুপুরে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপচারিতায় বিসিবিকে ধুয়ে দিয়েছেন তারকা এই অলরাউন্ডার। বিপিএল আয়োজন নিয়ে বিস্ফোরক সব মন্তব্য করেন সাকিব।

তিনি বলেন, ‘যদি আমি বিপিএলের প্রধান নির্বাহী হতাম, তাহলে এক থেকে দুই মাসের মধ্যে সব ঠিক করে দিতাম।’ দেশসেরা ক্রিকেটারের এমন মন্তব্যের পর দেশের ক্রীড়াঙ্গনে তোলপাড় শুরু হয়ে গেছে। সাকিবের সুরে সুর মিলিয়ে আগুনে ঘি ঢেলে দিয়েছেন ক্যাপ্টেন ফ্যান্টাস্টিক মাশরাফি বিন মর্তুজাও।

সাকিবের সে মন্তব্যের ইস্যুতে বিসিবি ও বিপিএলের কর্মকর্তারা বিষয়টাকে নিয়ে কি ভাবছেন? তারা কি ক্ষুব্ধ নাকি সাকিবের কথাকে গঠনমূলক সমালোচনা ভেবে অদূর ভবিষ্যতে বিপিএলের মান উন্নয়নে আরও অগ্রণী ভূমিকা রাখবেন?

বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) বিপিএলের টাইটেল স্পন্সরশিপ ঘোষণা অনুষ্ঠানে সাংবাদিকরা সাকিবের এমন মন্তব্যের বিষয়টি নিয়ে বিসিবি সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজনের কাছে প্রতিক্রিয়া জানতে চান। কিন্তু তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

পরে সংক্ষিপ্ত ভাষায় বিসিবি সিইও বলেন, ‘সাকিব কোন প্রেক্ষাপটে ওমন মন্তব্য করেছেন, তা আগে জানা দরকার। আমাদের সেটা জানা নেই। তবে সাকিব যদি বিসিবির সীমাবদ্ধতা জানতেন, তাহলে হয়তো এমন মন্তব্য করতেন না।’

বিপিএলের মান, আকর্ষণ, উত্তেজনা আর প্রতিদ্বন্দ্বিতা এখন অনেক কমে গেছে। ব্রডকাস্টিং, ডিআরএস প্রযুক্তি নিয়ে বিশ্ব যেখানে তরতর করে এগিয়ে যাচ্ছে, সেখানে এত সব ঘাটতি ও সীমাবদ্ধতা নিয়ে বিপিএলের নবম আসর আয়োজিত হতে যাচ্ছে। আগামীকাল ৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়ে সাত দলের টুর্নামেন্ট শেষ হবে ১৬ ফেব্রুয়ারি।

সূত্র: আরটিভি নিউজ
আইএ/ ০৫ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button