জাতীয়

বিদায় ২০২২ স্বাগত ২০২৩

ঢাকা, ০১ জানুয়ারি – করোনা মহামারি, ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ, পণ্যের দাম বৃদ্ধি আর ফুটবলের মহাতারকা লিওনেল মেসির বিশ্বকাপ অর্জন এসবের মাঝেই শেষ হলো ইংরেজি বছর ২০২২। পুরোনো বছরকে বিদায় জানিয়ে এলো নতুন বছর। স্বাগত ২০২৩। শুভ নববর্ষ।

করোনা মহামারির কারণে গত কয়েক বছর পানসে ছিল নববর্ষ উদযাপন। তবে লকডাউন, কোয়ারেন্টাইন, আইসোলেশন, ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা এখন অনেকটাই শিথিল বিশ্বের অধিকাংশ দেশে। নববর্ষ এবার অনেকেই বর্ণাঢ্যভাবে উদযাপন করেছে। সিডনি নববর্ষ ২০২৩ উদযাপনের প্রধান শহরগুলোর মধ্যে একটি যেটি গত দুই বছর ধরে লকডাউনের আওতায় ছিল। করোনার ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল শহরটিতে। অস্ট্রেলিয়ার সীমান্ত আবার চালু হয়েছে। এবার সিডনিতে নববর্ষ উদযাপনে সামিল হয়েছে লাখ লাখ মানুষ। সিডনি কর্তৃপক্ষ জানায়, প্রায় ৫০ লাখ মানুষ অনলাইন বা টেলিভিশনে নববর্ষ উদযাপনের আয়োজন উপভোগ করেছে।

২০২২ সাল কারও কাছে আনন্দের হলেও কারও কাছে বিষাদের। এই বছর ব্রিটেনের রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ মারা গেছেন। ব্রাজিলিয়ান ফুটবল আইকন পেলে চলে গেলেন সমপ্রতি। একই সঙ্গে বিশ্বনেতাদের একজন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবেও মারা গেছেন এ বছর।

অপরদিকে, ২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে গোটা বিশ্বে ব্যাপক গোলযোগের সৃষ্টি হয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অর্থনীতিতে ধস নামে। জ্বালানি তেলের বাজারও বছরজুড়ে ছিল অস্থিতিশীল। তবে বিশ্বের অন্যান্য অনেক দেশেই বর্ষবরণে জমকালো অনুষ্ঠান হয়েছে। বিশেষ করে আর্জেন্টাইনদের কাছে এবারের বর্ষবরণ উদযাপন একটু ভিন্ন রকম।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ০১ জানুয়ারি ২০২৩

Back to top button