জাতীয়

গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচন স্মরণীয় করে রাখতে চায় ইসি

গাইবান্ধা, ২৮ ডিসেম্বর – নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা বলেছেন, আমরা চাই আগামী ৪ জানুয়ারি গাইবান্ধা-৫ আসনের স্থগিত হওয়া উপনির্বাচন স্মরণীয় হয়ে থাকুক। এ জাতি ও এ দেশের মানুষ বুঝুক এই নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু সুন্দর অবাধ গ্রহণযোগ্য নির্বাচন উপহার দিতে পারে।

বুধবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুরে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে নির্বাচনে অংশ নেওয়া প্রার্থী এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে মতবিনিময়ে তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাশেদা সুলতানা বলেন, উপ-নির্বাচন যেন উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়, সাধারণ মানুষ যেন কোনো প্রকার ভয়ভীতি ছাড়াই ভোট দিতে পারেন সেজন্য সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। সমস্ত প্রতিবন্ধকতা দূর করে যে কোনো উপায়েই হোক গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচন সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য করা হবে। এতে কোনো সন্দেহ নেই।

তিনি আরও বলেন, আমরা এমন প্রস্তুতি নিয়েছি কোনো ভোটার যেন বলতে না পারেন যে আমি ভোট দিতে পারিনি। এ অঞ্চলের মানুষ নির্দ্বিধায় ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারবেন পাশাপাশি কোনো অনিয়মকে প্রশ্রয় দেওয়া হবে না, সে যেই হোক তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে উদ্দেশ্য করে রাশেদা সুলতানা বলেন, আপনারা জানেন গত উপ-নির্বাচনে দায়িত্ব অবহেলার দায়ে পাঁচ পুলিশ সদস্যের উপর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। ৪ জানুয়ারির নির্বাচনে দায়িত্ব অবহেলা কিংবা অনিয়মের ছিটেফোঁটা প্রমাণ পাওয়া গেলে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী থেকে শুরু করে কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।

গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক মো. অলিউর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় পুলিশ সুপার, নির্বাচন কর্মকর্তা, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীসহ সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ও এ আসনের এমপি ফজলে রাব্বী মিয়ার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। পরে ১২ অক্টোবার অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনে ব্যাপক অনিয়মের কারণে নির্বাচন স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন। পরবর্তীতে ৪ জানুয়ারি পুনরায় ভোট গ্রহণের তারিখ ঘোষণা করা হয়।

সূত্র: বাংলানিউজ
এম ইউ/২৮ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button