জাতীয়

‘মানুষের বেশি কষ্ট হলে মেট্রোরেলের ভাড়া পর্যালোচনা হবে’

ঢাকা, ২৮ ডিসেম্বর – রাজধানীবাসীর বহুল আকাঙ্ক্ষার বাহন মেট্রোরেল আজ (বুধবার) উদ্বোধন করা হয়েছে। রাজধানীর প্রথমপর্যায়ে উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে আগারগাঁও স্টেশন পর্যন্ত এটি আজ আনুষ্ঠানিক চালু হলো। এ পথের দূরত্ব ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার। মেট্রোরেলের সর্বনিম্ন ভাড়া ২০ টাকা এবং প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া ৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উত্তরার দিয়াবাড়ীতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাজধানীবাসীর স্বপ্নের এ বাহনের উদ্বোধন করেন। পরে তিনি প্রথম যাত্রী হিসেবে মেট্রোরেলে চড়েন এবং তার যাত্রাসঙ্গী অন্য যাত্রীদের নিয়ে দিয়াবাড়ী থেকে আগারগাঁও স্টেশনে যান। মন্ত্রিসভার সদস্য ও নির্ধারিত কিছুসংখ্যক আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন।

আগারগাঁও মেট্রোরেল স্টেশনে যাওয়ার পর কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, মেট্রোরেলের ভাড়া নিয়ে যদি মানুষের বেশি কষ্ট হয়, তাহলে সেটি পর্যালোচনা করা হবে।

উত্তরা উত্তর স্টেশন (দিয়াবাড়ী) থেকে আগারগাঁও স্টেশনের ভাড়া হবে ৬০ টাকা। আর মতিঝিল পর্যন্ত চালু হওয়ার পর উত্তরা থেকে মতিঝিল স্টেশন পর্যন্ত ভাড়া পড়বে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা।

আগারগাঁও মেট্রোরেল স্টেশনে যাওয়ার পর কৃষিমন্ত্রীর কাছে সাংবাদিকদের প্রশ্ন ছিল যে- অনেকে বলছেন ভাড়া একটু বেশি হয়েছে, সেটি পুনর্বিবেচনার কোনো সুযোগ আছে কিনা?

জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘এটি শুরু হলো, দেখা যাক। এটি তো জনগণের সরকার। জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষাকে আমরা প্রতিধ্বনিত করি, বাস্তবায়ন করি। যদি মানুষের বেশি কষ্ট হয়, তাহলে নিশ্চয়ই পর্যালোচনা করব এবং এটিই চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নয়। অবশ্যই চিন্তা করা যাবে।’

পদ্মা সেতুর পর মেট্রোরেলকে আরেক মাইলফলক হিসেবে মন্তব্য করে রাজ্জাক বলেন, মেট্রোরেল মাত্র শুরু হলো। সারা জাতিকে আশান্বিত করল। ভবিষ্যতে এ রকম মেট্রোরেল সারা ঢাকা শহর ছড়িয়ে যাবে এবং পরিবহণের যে সমস্যা, তা অনেক কমে আসবে। ঢাকা হবে গর্বের ও অহংকারের একটি শহর।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/২৮ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button