জাতীয়

কেমন হচ্ছে মেট্রোরেল পুলিশ ইউনিট

রিয়াদ তালুকদার

ঢাকা, ২৬ ডিসেম্বর – চালু হতে যাচ্ছে স্বপ্নের মেট্রোরেল। আগামী ২৮ ডিসেম্বর বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে মেট্রোরেল উদ্বোধন করবেন। এদিন উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত রুটে মেট্রোরেল যাত্রা শুরু করবে। যাত্রী পরিবহন শুরু হতে যাচ্ছে, তবে এখনও চূড়ান্ত অনুমোদন পায়নি মেট্রোরেলের নিরাপত্তায় পুলিশের বিশেষ ইউনিট। ৩৫৭ জন সদস্য নিয়ে পুলিশের বিশেষ ইউনিট হিসেবে ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (এমআরটি) নামে নতুন একটি ইউনিট চালু হওয়ার কথা ছিল। তবে চূড়ান্ত অনুমোদন না পাওয়ার আগ পর্যন্ত মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ পুলিশ সদর দফতর থেকে তাদের চাহিদা অনুযায়ী পুলিশ সদস্য নিয়ে নিরাপত্তার কাজটি চালাবেন। ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কর্তৃপক্ষ এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এমআরটি কর্তৃপক্ষ আশা করছে, সরকার দ্রুত এমআরটি পুলিশের অনুমোদন দেবে। হয়তো ২৮ ডিসেম্বরের আগেই এমআরটি পুলিশ গঠনের অনুমোদন পাওয়া যেতে পারে। অনুমোদন পাওয়ার পরপরই নতুন এই ইউনিট মেট্রোরেলের কাজে যোগ দেবে। এই ইউনিটের প্রধান হিসেবে থাকবেন ডিআইজি পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তা। অনুমোদনের বিষয়ে সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা হয়েছে।

উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত প্রায় ১২ কিলোমিটার মেট্রোরেলে ৯টি স্টেশন থাকবে। এসব স্টেশনে এমআরটি পুলিশ নিরাপত্তার বিষয়টি দেখভাল করবে।

মেট্রোরেল

পুলিশ সদর দফতর বলছে, এমআরটি পুলিশ নামে নতুন ইউনিট গঠনের প্রক্রিয়া বর্তমানে রিভিউয়ের জন্য সচিব কমিটিতে রয়েছে। ইউনিট গঠনের আগ পর্যন্ত পুলিশ সদস্যরা এই ইউনিটের আওতায় এসে কোনও ধরনের কার্যক্রম শুরু করতে পারবেন না। তবে মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ যদি পুলিশ সদর দফতরের কাছে নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সদস্য চায়, তাহলে সে বিষয়ে সদর দফতর কার্যকর ব্যবস্থা নেবে।

ইতোমধ্যে মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সদর দফতরে পুলিশ সদস্য চেয়েছে। কর্তৃপক্ষের চাহিদা অনুযায়ী সব বিষয় বিবেচনা করে সদর দফতর পুলিশ সদস্যদের সেখানে মোতায়েন করেছে। তবে সংখ্যার বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

মেট্রোরেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন সিদ্দিকী বলেন, মেট্রোরেলের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সদর দফতরের কাছ থেকে যাওয়া পুলিশ সদস্যরা মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) সকাল থেকে মেট্রোরেলের বিভিন্ন জায়গায় নিয়োজিত রয়েছেন। মেট্রোরেল পুলিশের অনুমোদন না হওয়া পর্যন্ত তারা নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবেন। তবে তিনি আশা প্রকাশ করেন, দ্রুত মেট্রোরেল পুলিশ ইউনিটের অনুমোদন পাওয়া যাবে।

মেট্রোরেল উদ্বোধনের আগে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

বাংলাদেশ পুলিশ সদর দফতরের অতিরিক্ত ডিআইজি (ওএনএফ) ফারুক হোসেন বলেন, এখন পর্যন্ত মেট্রোরেল পুলিশ নামে নতুন ইউনিটের অনুমোদন পাওয়া যায়নি। বিষয়টি সচিব কমিটিতে রয়েছে। সেখানে পর্যালোচনা চলছে। অনুমোদন পাওয়ার পর মেট্রোরেলের নিরাপত্তায় মেট্রোরেল পুলিশ কার্যক্রম শুরু করবে।

মেট্রোরেল পুলিশের ইউনিটে যারা থাকছেন

৩৫৭ সদস্যের মেট্রোরেল পুলিশের প্রধান হিসেবে থাকবেন একজন ডিআইজি পদমর্যাদার কর্মকর্তা। থাকবেন পুলিশ সুপার (এসপি) পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তা। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) পদমর্যাদার কর্মকর্তা রাখার জন্যও প্রস্তাব রাখা হয়েছে। তবে থাকছেন না সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) পদমর্যাদার কোনও কর্মকর্তা।

এছাড়া পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) পদমর্যাদার সাত জন কর্মকর্তা থাকবেন মেট্রোরেল পুলিশ ইউনিটে। উপপরিদর্শক (এসআই) পদমর্যাদার চার জন (নিরস্ত্র) এবং দুজন (অস্ত্র); সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) পদমর্যাদার ৫১ জন (নিরস্ত্র) এবং চার জন (অস্ত্র), নায়েক ১০ জন, কনস্টেবল ২৭০ জন, হিসাবরক্ষক একজন, উচ্চমান সহকারী একজন, কম্পিউটার অপারেটর একজনসহ আরও কয়েকটি পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন
এম ইউ/২৬ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button