দক্ষিণ এশিয়া

নারী কর্মী নিষিদ্ধের জের, আফগানিস্তানে কার্যক্রম স্থগিত করল শীর্ষ ৩ এনজিও

কাবুল, ২৫ ডিসেম্বর – আফগানিস্তানে তালেবান-শাসিত প্রশাসন দেশি-বিদেশি এনজিওতে নারী কর্মীদের কাজ করা নিষিদ্ধের পর সেখানে তিনটি প্রধান এনজিও তাদের কার্যক্রম স্থগিত করেছে। এক যৌথ বিবৃতিতে কেয়ার ইন্টারন্যাশনাল, নরওয়েজিয়ান রিফিউজি কাউন্সিল (এনআরসি) এবং সেভ দ্য চিলড্রেন জানায়, নারী কর্মী ছাড়া তাদের কাজ করা সম্ভব না। বিবৃতিতে তারা দাবি করে, নারীদের কাজ করার অধিকার দিতে হবে। আফগানিস্তানে তালেবানরা ক্রমাগত নারীদের অধিকার হরণ করছে।

উল্লেখ্য, এর আগে হিজাব না পরার কারণ দেখিয়ে দেশি-বিদেশি এনজিওতে নারীদের কাজ করা নিষিদ্ধ করে তালেবান। এমনকি এই নির্দেশ লঙ্ঘন করা হলে তাদের লাইসেন্স বাতিলের হুমকি দেওয়া হয়। তালেবান তাদের ব্যাখ্যায় জানায়, এনজিওকর্মীরা হিজাব না পরে ইসলামী শরিয়ার পোশাকের আইন ভঙ্গ করছে। এদিকে শনিবার তালেবানের জারি করা এই নির্দেশকে মৌলিক অধিকারের লঙ্ঘন বলে নিন্দা জানায় জাতিসংঘ। তালেবানের এই নির্দেশের কিছুদিন আগে বিশ্ববিদ্যালয়ে নারী শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিষিদ্ধ করা হয়।

সেভ দ্যা চিলড্রেনের একজন কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা বিবিসিকে বলেন, তারা এ নিয়ে তালেবান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করবে। কিন্তু নারীদের যদি কাজ করতে দেওয়া না হয়, তাহলে হয়তো তাদের কার্যক্রম গুটিয়ে ফেলতে হবে। বেসরকারি সংস্থাগুলোর কাজে নারী ও শিশুদের কাছে সেবা পৌঁছানোর জন্য নারী কর্মী থাকা অত্যাবশ্যক বলে মন্তব্য করেন কেয়ার ইন্টারন্যাশনালের কর্মকর্তা মেলিসা কর্নে।

প্রসঙ্গত, এ সপ্তাহেই তালেবান সে দেশের নারীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া নিষিদ্ধ করে এবং প্রাইভেট টিউশন কেন্দ্রগুলোর প্রতি আদেশ দেয়, যেন তারা কোনো ছাত্রীকে শিক্ষাদান না করে।

সূত্র: দেশ রূপান্তর
আইএ/ ২৫ ডিসেম্বর ২০২২

Back to top button